19.9 C
Toronto
শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস, বিয়ের দাবিতে অনশন

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস, বিয়ের দাবিতে অনশন
প্রতীকী ছবি

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তিন মাস বাসা ভাড়া নিয়ে থাকার পর প্রেমিক ফিরোজ আহম্মেদ একদিন পালিয়ে যান। এরপর ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী জানতে পারেন ফিরোজ বিবাহিত। এ ঘটনার পর শনিবার (২১ অক্টোবর) অভিযুক্ত ফিরোজের বাড়িতে অবস্থান নেন ওই কলেজছাত্রী। ফিরোজ আহম্মেদ রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার আলীপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে।

জানা গেছে, ফিরোজ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার্থী। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন প্রায় দেড় বছর আগে। এরপর গত ৩ মাস ধরে বগুড়ার সদর মাটিঢালি এলাকায় চাকরির নামে একটি বাসা ভাড়া করে ওই কলেজছাত্রীকে নিয়ে থাকতে শুরু করেন ফিরোজ। কিন্তু একদিন সেখান থেকে পালিয়ে যান ফিরোজ।

- Advertisement -

এরপর ফিরোজের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী। নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার বাসিন্দা ওই কলেজছাত্রীর অভিযোগ তাকে ফিরোজের বাড়ির লোকজন তাড়িয়ে দিয়েছে। আর তার উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই কেটে পড়েন ফিরোজ। পরে দূর্গাপুর থানায় অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী।

ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর দাবি, দেড় বছর আগে ফিরোজের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর ফিরোজের সঙ্গে বগুড়া সদরের মাটিঢালি এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নেন। সেখানে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তিন মাস থাকেন তারা। ফিরোজ তাকে একাধিকবার নিজের বাড়িতেও নিয়ে গেছে বলে দাবি তার।

তিনি আরো বলেন, আমার এলাকার সবাই ফিরোজকে জামাই হিসেবে চেনেন।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles