18.5 C
Toronto
বুধবার, জুন ১২, ২০২৪

মিতালীর কেবিনে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার রহস্য উন্মোচন

মিতালীর কেবিনে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার রহস্য উন্মোচন

২০১৯ সালের ১৭ জুন ঢাকা-চাঁদপুর নৌপথে চলাচলকরী এমভি মিতালী-৭ লঞ্চের কেবিনে ধর্ষণের পর হত্যার শিকার নিলুফা ইয়াসমিন (৫৫) হত্যার রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

- Advertisement -

বুধবার (১১ অক্টোবর) এ ঘটনায় দেলোয়ার নামের একজনকে গ্রেপ্তার হয়েছে। এ বিষয়ে আজ সংস্থাটির সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাবেন তদন্ত সংস্থাটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, স্বামী মারা যাওয়ার কয়েক বছর পর দেলোয়ারের সঙ্গে পরিচয় হয় চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের বিধবা নিলুফা ইয়াসমিনের। ঘনিষ্ট সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাদের মধ্যে। ২০১৯ সালের ১৭ জুন প্রতিপক্ষ জাহাঙ্গীরকে ফাঁসাতে গ্রেপ্তার দেলোয়ার নিলুফারকে সঙ্গে নিয়ে লঞ্চের কেবিন বুকিংয়ে নিজের নাম জাহাঙ্গীর বলে উল্লেখ করেন। এছাড়া নিজ মোবাইল নম্বরের স্থলে জাহাঙ্গীরের নম্বর উল্লেখ করেন। এরপর নিলুফারকে ধর্ষণের পর হত্যা করে দেলোয়ার। পূর্ব পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড এ হত্যাকান্ড পুলিশের দীর্ঘ তদন্তে বেরিয়ে এসেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ১৭ জুন দুপুরে রাজধানীর সদরঘাটে এমভি মিতালী-৭ নামে একটি লঞ্চের কেবিন থেকে নিলুফা ইয়াসমিন (৫৫) নামে এক নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles