15.9 C
Toronto
শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

প্রাসঙ্গিক হোক বা না হোক

প্রাসঙ্গিক হোক বা না হোক
সম্প্রতি ফেসবুকের একটা গ্রুপে একজন একটি পোষ্টে জানতে চেয়েছেন মন্ট্রিয়ল থেকে মুভ করে নীচের কোন শহরটিতে যাওয়া তার জন্যে ভাল হবে

আমাদের একটা বৈশিষ্ট হলো যা জিজ্ঞেস করা হয় নি তা নিয়ে কথা বলা। অর্থাৎ প্রাসঙ্গিক হোক বা না হোক সেটা নিয়ে কথা বলা। এতে করে অনেকেই বিপদে পরেন, বিব্রত হোন। কিন্তু তাতে কি? তাদের কাজ তারা করে যাবেনই।
সম্প্রতি ফেসবুকের একটা গ্রুপে একজন একটি পোষ্টে জানতে চেয়েছেন, “মন্ট্রিয়ল থেকে মুভ করে নীচের কোন শহরটিতে যাওয়া তার জন্যে ভাল হবে?

১। উইন্ডসোর ২। লন্ডন ৩। করনওয়াল

- Advertisement -

আমাদের বিজ্ঞ অনেক বিশেষজ্ঞরা কমেন্ট বক্সে সাজেস্ট করলেন, টরন্টো, অটোয়া, ক্যালগারি, মিসিসাগা, ব্রাম্পটন, কিচেনার, ভ্যন্কুভার ইত্যাদি। কেউ কেউ লিখলেন কেন তিনি মুভ করতে চান? কেউ লিখলেন কোনটাই না, কেউ লিখলেন এক কথায় বলা সম্ভব না! কেউ লিখলেন যেখানে আছেন সেটাই ভাল!

এগুলো দেখে অবাক হই নি তবে মনে মনে ভাবলাম, যিনি পোষ্ট দিয়েছেন তিনি হয়তো ভাবছেন, ওরে মা’রে মরছি রে!
কেউ কেউ যে তিনটির মধ্যেই উত্তর দেন নি তা নয় তবে তাদের সংখ্যা খুব বেশী নয়।

এই স্বভাব যে শুধু বাঙালীদের মধ্যেই আছে তা নয়। আমার অফিসে একজন জিজ্ঞেস করেছেন, শুক্রবারে দুপুর ২ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত কার কি কি মিটিং আছে? একজন লিখেছে দুপুর ১ টা থেকে তার পাঁচ ছয়টি মিটিং আছে। আমি লিখলাম দুপুর ২ টা থেকে ৫টা পর্যন্ত আমার মাত্র ১টি মিটিং রয়েছে। অথচ আমারও কিন্তু দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত আরো ৪টা মিটিং আছে। মোট ৫টা। কিন্তু তিনিতো আমাকে জিজ্ঞেস করেন নি যে দুপুর ১টা থেকে ৫টার কথা। তিনি জিজ্ঞেস করেছেন দুপুর ২টা থেকে। এখন দেখুন আমি সঠিক উত্তর দিলেও প্রশ্ন কর্তা যদি মুল প্রশ্নের বিষয়ে সচেতন না থাকেন, হঠাৎ করে শুধু উত্তরগুলো দেখেন তাহলে ভাববেন, আমি কম ব্যস্ত আছি, আর অন্যজন ভীষণ ব্যস্ত!

তবুও আমাদেরকে কন্টেন্টের মধ্যেই থাকা উচিত। অপ্রাসঙ্গিক কথা বললে অনেক ক্ষেত্রেই আপনি বিপদে পরতে পারেন। যেমন ভিসা নিয়ে যখন বিদেশে যাবেন, সেই দেশের বিমান বন্দরে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা যা প্রশ্ন করবেন শুধু তারই উত্তর দিবেন। বাড়তি কথা বললেই সুমহ বিপদের সম্ভাবনা।

বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ে কথা বলা খুবই মুশকিল। গোড়ায় গলদ। তবুও আলাদা করে যখন কোন একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করতে চেষ্টা করি আমাদের উচিত বিষয়ের উপর আলোচনা করা। বিষয় বহির্ভুত কথা বললেই, কথায় কথা এসে যায় এবং ভুল বুঝাবুঝি হয়।

জানি এসব কথায় কাজ হবে না, তবুও যদি কিছু হয়, তাই এতটুকু চেষ্টা করা আর কি!

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles