18.9 C
Toronto
বুধবার, মে ২২, ২০২৪

বাংলাদেশে বিক্ষোভকারীদের ওপর বেআইনি বলপ্রয়োগ বন্ধের আহ্বান অ্যামনেস্টির

বাংলাদেশে বিক্ষোভকারীদের ওপর বেআইনি বলপ্রয়োগ বন্ধের আহ্বান অ্যামনেস্টির

বাংলাদেশে অবিলম্বে বিক্ষোভকারীদের ওপর বলপ্রয়োগ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। গত ২৯ জুলাই বিরোধী দলের কর্মসূচিতে সহিংস আক্রমণের খবর যাচাইয়ের পর এই আহ্বান জানায় যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংস্থাটি।

- Advertisement -

আজ শুক্রবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই আহ্বান জানানো হয়।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই বিক্ষোভকারীদের ওপর অতিরিক্ত বলপ্রয়োগ বন্ধ করতে হবে। প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে অ্যামনেস্টি জানায়, পুলিশ হামলা করার আগপর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবেই বিক্ষোভ চলছিল।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচনের দাবিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) সেদিন ঢাকার বিভিন্ন প্রবেশপথে অবস্থান নেয়। পুলিশের সঙ্গে সহিংসতার মধ্য দিয়ে শেষ হয় তাদের কর্মসূচি।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের অন্তর্বর্তীকালীন দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক আঞ্চলিক পরিচালক স্মৃতি সিংহ বলেন, ‘অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল যেসব ভিডিও ও ছবি যাচাই করেছে, সেগুলোতে বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয় ফুটে উঠেছে। আমরা বাংলাদেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো যেন কঠোরভাবে আইন মেনে চলে এবং নাগরিকদের বাক্‌স্বাধীনতা ও শান্তিপূর্ণ সভা-সমাবেশের প্রতি সম্মান জানায়। মানুষের ক্ষতি এড়াতে এবং সংকট যেন ত্বরান্বিত না হয়, সে কারণেই এটা করা দরকার।’

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের গবেষকেরা এবং ক্রাইসিস এভিডেন্স ল্যাব বাংলাদেশের সেদিনের বিক্ষোভের ৫৬টি স্থিরচিত্র ও ১৮টি ভিডিও পর্যালোচনা করে। পাশাপাশি এই ঘটনার নয়জন প্রত্যক্ষদর্শীর সঙ্গে কথা বলে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সাংবাদিকের বরাত দিয়ে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলে, মাতুয়াইলে বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় বসে ছিল এবং স্লোগান দিচ্ছিল। পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ওপর রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে।

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘যতটুকু দেখেছি, বিক্ষোভকারীদের হাতে অস্ত্র ছিল না। তবে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ওপর কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে।’

স্মৃতি সিংহ বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশের কাঁদানে গ্যাসের শেল, রাবার বুলেট ব্যবহার করা উচিত নয়।’

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles