5.3 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করার দাবিতে সমাবেশ

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করার দাবিতে সমাবেশ

সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ করাসহ ৩ দাবি নিয়ে ফের রাজধানীতে সমাবেশে করছেন চাকরিপ্রত্যাশী শিক্ষার্থীরা। আজ শনিবার দুপুর ১২টায় শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে এ সমাবেশ শুরু হয়। শিক্ষার্থী সমাবেশে প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে ৩০-ঊর্ধ্বদের সার্টিফিকেট ছেঁড়ার আয়োজন করা হয়েছে।

- Advertisement -

সমাবেশে দ্রুত সময়ের মধ্যে চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩০ বছর থেকে বৃদ্ধি করে ৩৫ বছর এবং অবসরে বয়সসীমা বৃদ্ধির। একই সঙ্গে সরকারি চাকরিতে আবেদনের ফি কমিয়ে সর্বোচ্চ প্রথম শ্রেণিতে ২০০ টাকা, দ্বিতীয় শ্রেণিতে ১৫০ টাকা, তৃতীয় শ্রেণিতে ১০০ টাকা, চতুর্থ শ্রেণিতে ৫০ টাকা করার দাবি জানানো হয়। এছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি বিজড়িত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুষদে বঙ্গবন্ধুর নামে বঙ্গবন্ধু ল’ কমপ্লেক্স (বঙ্গবন্ধু চেয়ার এবং একটি ম্যুরাল) স্থাপন করার দাবি জানান বক্তরা।

সমাবেশে বক্তরা বলেন, আমরা চাকরির বয়সসীমা ৩০ থেকে ৩৫ করার লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে যাচ্ছি। সারা বাংলাদেশে অনেক আমলা, অনেক কূটনীতিক ও অনেক মন্ত্রী আছেন কিন্তু তারা আজ পর্যন্ত আমাদের এই দাবিগুলো প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরতে পারেননি। জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি লাখ লাখ তরুণের হয়ে চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানাতে চেষ্টা করেছিলেন। বিষয়টি ২০১৮ সালের প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী ইশতেহারে স্পষ্ট করে উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছিল কিন্তু দেখা গেছে প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে কিছুই জানেন না। যারা নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়ন কমিটিতে ছিলেন তারা প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি অবগত করতে পারেননি। কিন্তু আমরা তরুণ সমাজ দমে যায়নি। আমাদের এই আন্দোলন আমরা চালিয়ে যাবো।

বক্তরা আরও বলেন, আপনারা জানেন জাতীয় সংসদে ৭১ বার বিলটি উস্থাপন করা হয়েছিল। কিন্তু বিলটি উস্থাপিত হওয়ার পর ৩০ এর কোটা ভাঙা সম্ভব হয়নি। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সংসদীয় স্ট্যাডিং কমিটিতে লিখিতভাবে চাকরিতে বয়সসীমা ৩৫ করার লক্ষ্যে সুপারিশ করেছিল কিন্তু আজ অবধি সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। এই সমাবেশের লক্ষ্য আমাদের এই দাবি উড়ো চিঠির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে পৌঁছাবে।

প্রধানমন্ত্রী যদি চাকরির বয়সসীমা বাড়ান তাহলে শিক্ষার্থী সমাজ আগামী নির্বাচনে ভোট দিয়ে পাশে থাকবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন বক্তরা।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন শরিফুল হাসান শুভ (ঢাবি), আহ্বায়ক, চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী সমন্বয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত আছেন মোহাম্মদ রাসেল (চবি), সদস্যসচিব, চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী সমন্বয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি; মো. সানোয়ারুল হক সনি (ঢাবি), আহ্বায়ক, চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী সমন্বয় পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। সমাবেশ সঞ্চালনা করবেন মো. খোকন মিয়া (ঢাবি), চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী সমন্বয় পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

সূত্র : আমাদের সময়

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles