22.1 C
Toronto
শুক্রবার, জুলাই ১২, ২০২৪

প্রয়োজনের বেশি ঘুম হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলছেন না তো?

প্রয়োজনের বেশি ঘুম হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলছেন না তো?
প্রতীকী ছবি

শরীর সুস্থ রাখতে পর্যাপ্ত ঘুম অত্যন্ত জরুরি। কারণ অনিদ্রা বা ঘুম না হওয়া শুধু শারীরিক নয়, প্রভাব ফেলে মানসিক স্বাস্থ্যেও। ঘুম না হলে সারাদিন ক্লান্ত থাকে শরীর। ফলে কোনও কাজই আপনি সুষ্ঠুভাবে করে উঠতে পারেন না। তবে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন শুধু কম ঘুম নয়, প্রয়োজনের অতিরিক্ত ঘুমও ডেকে আনে বিপদ। সেটা ঘুমের ঘাটতির চেয়েও আরও বেশি মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। অত্যধিক ঘুমের হাত ধরে কোন সমস্যাগুলি দেখা দিতে পারে?

হৃদযন্ত্রের সমস্যা

- Advertisement -

বেশি ঘুমালে দিনের অনেকটা সময় শুয়ে শুয়েই অতিবাহিত হয়ে যায়। শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখতে যেটুকু শরীরচর্চা প্রয়োজন, রোজ সেইটুকু করতে না পারলে হার্টের সমস্যা হবেই। শুধু তাই নয়, রক্ত চলাচলেও কিন্তু সমস্যা হতে পারে। রক্ত প্রবাহ ঠিক স্বাভাবিক না থাকলে হৃদরোগের ঝুঁকি থেকে যায়।

রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যাওয়া

রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যাওয়া নির্ভর করে কোনও ব্যক্তি কেমনভাবে জীবনযাপন করছেন, তার ওপর। কারণ, তার সারা দিনের খাওয়াদাওয়া, কাজ, শরীরচর্চা এই সব কিছুর প্রভাব পড়ে ওই ব্যক্তির বিপাকহারের ওপর। দিনের বেশির ভাগ সময়ে যদি ঘুমিয়েই কাটে, সেক্ষেত্রে কোনও রুটিনই সঠিক ভাবে মেনে চলা যায় না। ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা ক্রমশ বাড়তে থাকে।

প্রজনন ক্ষমতা কমে যাওয়া

দীর্ঘক্ষণ ঘুমালে শারীরিক সক্রিয়তা অনেকটাই কমে যায়। ফলে নারী এবং পুরুষ উভয়েরই প্রজনন ক্ষমতায় প্রভাব পড়ে। শারীরিকভাবে সক্ষম না থাকলে, প্রজননে সাহায্যকারী হরমোনগুলোর ভারসাম্যও নষ্ট হয়।

স্থূলতা

বেশি ঘুমালে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি। দিনের অধিকাংশ সময়ে ঘুমিয়ে থাকলে স্বাভাবিক ভাবেই শরীরচর্চার অভ্যাসে ভাটা পড়ে। শরীরচর্চা না করলেই ওজন বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে। তাছাড়া ওজন বেশি হলে নানা রকম রোগও বাসা বাঁধবে শরীরে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles