-4 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪

জাতীয় সংগীত গাইতে না পারায় শিক্ষকের বেতন স্থগিতের নির্দেশ!

জাতীয় সংগীত গাইতে না পারায় শিক্ষকের বেতন স্থগিতের নির্দেশ!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় জাতীয় সংগীত সম্পূর্ণ গাইতে না পারায় এক শিক্ষকের বেতন স্থগিত এবং শিক্ষা কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক। মঙ্গলবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম উপজেলার মোগড়া উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসে এ নির্দেশ দেন।

- Advertisement -

জাতীয় সংগীত গাইতে না পারা শিক্ষক হলেন শরীরচর্চা শিক্ষক মো. সোহরাব হোসেন। এ সময় বিদ্যালয়ে উপস্থিত না থাকায় শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসেনকে কারণ দর্শানোর জন্য আখাউড়ার ইউএনওকে নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আখাউড়া উপজেলার মোগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে যান। পরিদর্শনকালে তিনি বিদ্যালয়ের বিভিন্ন খোঁজখবর নেন। একপর্যায়ে শরীর চর্চা শিক্ষক মো. সোহরাব হোসেনকে জাতীয় সংগীত গাইতে বলেন। কিন্তু তিনি সম্পূর্ণ সংগীত গাইতে না পারায় জেলা প্রশাসক রাগান্বিত হয়ে শরীর চর্চা শিক্ষকের বেতন স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন। যতদিন পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীরা শুদ্ধভাবে সম্পূর্ণ জাতীয় সংগীত গাইতে না পারবে ততদিন পর্যন্ত বেতন স্থগিত থাকবে।

এ সময় মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসেন বিদ্যালয়ে উপস্থিত না থাকায় তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিতে বলেন জেলা প্রশাসক।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবুল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ডিসি স্যার যে বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসেছেন বিষয়টি তিনি জানেন না। তবে তিনি বলেন, স্যার তো শোকজ করতেই পারেন।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অংগ্যজাই মারমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ডিসি স্যার মোগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে বিভিন্ন খোঁজখবর নেন। এ সময় সম্পূর্ণ জাতীয় সংগীত বলতে না পারায় ওই বিদ্যালয়ের শরীর চর্চা শিক্ষক মো. সোহরাব হোসেনের বেতন স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন। শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসেনকেও কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন ডিসি স্যার।

সূত্র : যুগান্তর

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles