5.6 C
Toronto
মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪

কয়লার দাম নিয়ে আলোচনায় ঢাকায় আদানির প্রতিনিধি দল

কয়লার দাম নিয়ে আলোচনায় ঢাকায় আদানির প্রতিনিধি দল

আদানির কাছ থেকে কম দামে কয়লা পাওয়ার আশা করছে বাংলাদেশ। তারই ধারাবাহিকতায় আদানির ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় এসেছে।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বিদ্যুৎ ভবনে পিডিবির উচ্চ পর্যায়ের কয়েকজন কর্মকর্তার সাথে তারা কয়লার দাম নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা করেছে বলে সূত্র জানায়।

আদানি গ্রুপ বাংলাদেশের কাছ থেকে কয়লার অতিরিক্ত দাম নিচ্ছে বলে সম্প্রতি অভিযোগ ওঠে। এর প্রেক্ষিতে আদানিকে চুক্তি সংশোধন করার অনুরোধ জানিয়ে পিডিবি একটি চিঠি দেয়। এ বিষয়ে প্রাথমিক আলোচনার অংশ হিসেবে আজ এই আলোচনা শুরু হলো।

পিডিবির একটি সূত্র জানায়, আজ বৃহস্পতিবার বিদ্যুৎ ভবনে প্রায় একঘণ্টা আলোচনা হয়েছে। এতে পিডিবির সদস্য (কোম্পানি সচিব) এবং সদস্য (অর্থ) উপস্থিত ছিলেন বলে জানা যায়। তবে এদের দুজনের একজনও আদানির বিষয়ে কোনও কথা বলতে রাজি হননি। দুপক্ষের সবাই এই সভার বিষয়ে কথা বলতে অনাগ্রহ দেখান। বিশেষ করে পিডিবি এই বৈঠকে আদানির কারা কারা উপস্থিত ছিলেন তাদের নামও জানাতে চাচ্ছে না।

জানা যায়, পিডিবি এবং আদানির প্রতিনিধিরা একে অপরের প্রস্তাব উপস্থাপন করেন। দুইপক্ষের মধ্যে আলোচনা হয়৷ উভয়েই এই আলোচনা অব্যাহত রাখার আগ্রহ দেখিয়েছে। তারা আরও কয়েকবার আলোচনায় বসবে।

পিডিবির একজন কর্মকর্তা জানান, আমরা তাদের বলেছি— আমাদের দেশের বিদ্যুৎকেন্দ্রে কয়লার দাম কত পড়ছে। একইসঙ্গে এ কারণে আমাদের দেশের বিদ্যুৎকেন্দ্রের ইউনিট প্রতি উৎপাদন ব্যয়ও তাদের জানানো হয়েছে। এখন আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

পিডিবি জানায়, আদানি তাদের কথা শুনেছে। এতে তারা আশা করছে আদানি কয়লার দামের বিষয়ে ইতিবাচক সমাধানে যাবে।

দেশের কয়লা চালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র গুলোর চাইতে টনপ্রতি আদানির কয়লার দাম অন্তত ১০০ ডলার বেশি পড়ছে বলে সরকারের তরফ থেকেও জানানো হয়েছে। কয়লার দাম বেশি নেওয়াতে আদানির বিদ্যুতের দাম পড়ছে প্রতি ইউনিট ২৪ টাকা। সেখানে দেশে আমদানি করা কয়লা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র ১২ টাকায় প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ গ্রিডে দিচ্ছে।

২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর বিদ্যুৎ বিভাগ ও আদানি পাওয়ারের মধ্যে একটি ক্রয় চুক্তি হয়। চুক্তির আওতায় আদানি ভারতের ঝাড়খণ্ডে ১ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে। প্রথম ইউনিট আগামী মার্চে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করবে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles