-2.2 C
Toronto
সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০২৩

মরক্কোর তরুণী থেকে বলিউডের দিল্বার গার্ল

মরক্কোর তরুণী থেকে বলিউডের দিল্বার গার্ল
নোরা ফাতেহি

বলিউডের পর এখন সারা বিশ্ববাসীর কাছে এক পরিচিত নাম নোরা ফাতেহি। বিগ বসের মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় এই বলিউড সুন্দরীর।

১৯৯২ সালে এক মরক্কান পরিবারে জন্ম নোরার। বেড়ে ওঠা কানাডায়। ক্যারিয়ার গড়তে ভারতে এসেছিলেন তিনি। ভারতের নাগরিক না হওয়া সত্ত্বেও কেন নোরা বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতেকে উপস্থাপন করবেন, তা নিয়ে সরব হয়েছিল নেটব্যবহারকারীদের একাংশ।

- Advertisement -

ছোট থেকেই নাচের প্রতি আগ্রহ ছিল নোরার। কিন্তু তার পরিবারের সদস্যরাই ছিলেন বিরুদ্ধে। ঘর বন্ধ করে নেটে ভিডিও দেখে নিজে থেকেই নাচ শিখেছিলেন নোরা। স্কুলে কখনও নাচ করলে তার সহপাঠীরা তাকে কটুকথা শোনাতেন। তবুও দমেননি নোরা।

ছেলেবেলা থেকে মঞ্চে বিপুল সংখ্যক দর্শকের সামনে পারফর্ম করতেন নোরা। কিন্তু তার কৈশোর খুব একটা সুখকর ছিল না। ১৬ বছর বয়স থেকে অর্থের প্রয়োজনে কাজ করতেন তিনি। কখনও রেস্তোরাঁয় খাবার পরিবেশন করতেন, কখনও বা লটারির টিকিট বিক্রি করতে হত নোরাকে। পানশালার কর্মী হিসাবেও কাজ করেছেন তিনি।

নাচের পাশাপাশি মডেলিংয়ের দিকেও ঝুঁকতে শুরু করেছিলেন নোরা। সেই জগতে কাজের সুযোগও পেয়ে যান তিনি। কলেজের পড়াশোনা শেষ না করে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে ভারতে আসেন নোরা। নাচে দক্ষতার জন্য ফিল্মজগতে কাজ পেয়ে যান তিনি।

২০১৪ সালে ‘রোর: দ্য টাইগার্স অফ সুন্দরবনস’ নামে একটি হিন্দি ছবি মুক্তি পায়। ওই ছবিতে প্রথম অভিনয় করেছিলেন নোরা। তারপর দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ‘আইটেম সং’-এ নাচের দৃশ্যে প্রায়ই দেখা যেত নোরাকে।

তবে বলিউড এই সুন্দরী খ্যাতি অর্জন শুরু করে ২০১৮ সাথে মুক্তি পাওয়া “দিল্বার দিল্বার” গানের মধ্য দিয়ে। ইউটিউবে প্রকাশ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ২ কোটি মানুষ ভিডিয়োটি দেখেন। রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে যান নোরা। তার পর আর তাকে ফিরে তাকাতে হয়নি।

বর্তমানে শুধু বলিউড নয়, সারা বিশ্ব মাতাচ্ছেন নোরা। সম্প্রতি লুসেইল স্টেডিয়ামের মঞ্চে ফুটবল বিশ্বকাপের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে হাজার আলোর মাঝে কালো রঙের জমকালো পোশাকে হাতে মাইক নিয়ে হাজির হলেন বলি-তারকা নোরা ফাতেহি। সারা বিশ্ব যেন তার দিকে চেয়ে। মঞ্চে বাল্কিস, রহমা রিয়াদ এবং মানালের সঙ্গে ইংরেজি এবং হিন্দি ভাষায় ‘লাইট দ্য স্কাই’ গানে গলা মেলালেন নোরা।

গানের তালে নাচও করতে দেখা গেল নোরাকে। এই পারফরম্যান্সের ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রামে ভাগ করে নোরা জানান, স্কুলের অডিটোরিয়াম থেকে বিশ্বকাপের মঞ্চ, সারা জীবন যেন এর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তিনি। নোরার মতে, তার ক্যারিয়ারে এ যেন এক ‘মহাকাব্যিক মুহূর্ত’।

বর্তমানে অবশ্য নিজের গান-নাচ থেকে ব্যক্তিগত দণ্ডের জন্য আলোচনায় আছেন নোরা। সম্প্রতি আর্থিক দুর্নীতির মামলায় অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখর তার প্রাক্তন প্রেমিকা এবং বলি-অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ়কে দামি উপহার পাঠাতেন নোরা। জ্যাকলিনের দাবি, নোরাও নাকি সুকেশের কাছে বহুমূল্য উপহার নিয়েছিলেন। সেই সূত্রে নোরাকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) তরফে তলব করা হয়। জ্যাকলিনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলাও করেন নোরা। নোরার দাবি, জ্যাকলিন এই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে নিজের কেরিয়ার নষ্ট করছেন। কিন্তু তাকে এই ‘নোংরামি’র সঙ্গে জড়ানোর কোনো কারণ নেই। সেই মর্মে নিজেকে দুর্নীতি মামলা থেকে মুক্ত করার আবেদনও জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

সাফল্যের সিঁড়িতে উঠতে উঠতে অবশেষে বিশ্বকাপের মঞ্চে পৌঁছে গিয়েছেন নোরা। পরিবারের আপত্তি, জন্মভূমি ছেড়ে চলে আসা— নিজের ক্যারিয়ারের জন্য ত্যাগও কম করেননি তিনি! বলিজগতের ‘আইটেম সং’-এর দুনিয়া একা হাতেই কাঁপিয়ে চলেছেন তিনি। নোরা যেন আধুনিক যুগের হেলেন। এক সময় হেলেনও এই জগৎ মাতিয়ে রাখতেন। তার নাচের পারফরম্যান্সের ধারেকাছে পৌঁছনো খুব সোজা কথা ছিল না। এখন যেন সেই হেলেনের ভূমিকাতেই যেন রয়েছেন নোরা।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles