-6.1 C
Toronto
সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০২৩

কে এই নতুন শীর্ষ ধনী বার্নার্ড আর্নল্ট?

কে এই নতুন শীর্ষ ধনী বার্নার্ড আর্নল্ট?
গত সপ্তাহে শীর্ষ ধনীর তকমা হারিয়েছেন ইলন মাস্ক তাকে টপকিয়ে বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ ধনী এলভিএমএইচের প্রধান নির্বাহী বার্নার্ড আর্নল্ট

বিল গেটস, জেফ বেজোস, আম্বানি ও আদানিদের নাম হরহামেশা শোনা গেলেও বার্নার্ড আর্নল্টের নাম খুব কম মানুষই শুনেছেন। এতে করে আর্নল্ট শীর্ষ ধনীর স্থান দখল করায় এখন অনেকরই প্রশ্ন – কে এ ব্যক্তি? কী করে হলেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী?

ফ্রান্সের প্রভাবশালী ব্যবসায়ী বার্নার্ড আর্নল্টের প্রতিষ্ঠান এলভিএমএইচ বিলাসবহুল শৌখিন পণ্য বিক্রির জন্য শুধু ফ্রান্স নয়, সমগ্র ইউরোপ বিখ্যাত। বার্নার্ডই প্রথম ফরাসি, যে কি-না প্রথমবারের মতো শীর্ষ ধনীর তকমা পেলেন।

- Advertisement -

সাধারণ ক্রেতারা এলভিএমএইচের পণ্য নিয়ে বিগত কয়েক দশক ধরে লোক দেখানো শো-অফ করে আসলেও খোদ এলভিএমএইচের মালিক বার্নার্ড নিজেকে আড়ালে রাখতেই পছন্দ করেন। এতে করে মাস্ক বা বেজোসের মতো সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে বাস্তবেও খুব একটা জনসম্মুখে দেখা যায়নি ৭৩ বছর বয়সী এ ধনকুবেরকে।

বর্তমানে বার্নার্ডের সম্পত্তির পরিমাণ ১৭০.৮ বিলিয়ন ডলার। শুধু ফ্রান্স না সমগ্র ইউরোপে এলভিএমএইচ এখন বিলাসবহুল পণ্য বিক্রির সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান। লুই ভিটনের ব্যাগ থেকে ক্রিশ্চিয়ান ডয়েরের সুগন্ধী, হাবলটের ঘড়ি থেকে লে পার্সিয়ানের মতো প্রতিষ্ঠান এলভিএমএইচের অন্তর্ভুক্ত। এছাড়া ফ্রান্সের উঠতি ব্যবসায়ীদের কাছে এলভিএমএইচ এক স্বপ্নের প্ল্যাটফর্ম যেখানে ব্যবসায় তারা নিজেদের অবস্থান পাকাপোক্ত করে থাকে। লুই ভিটনের মার্ক জ্যাকব, ক্রিশ্চিয়ান ডয়েরের রাফ সিমোনস ও ক্লেইনের ফোব ফিলোর মতো বাঘা বাঘা ব্যবসায়ীদের আঁতুড়ঘর বার্নার্ডের এলভিএমএইচ।

করোনা থেকে যুদ্ধাক্রান্ত সময়ে অন্য সব বিলিয়নিয়ারদের মতো বার্নার্ডেরও সম্পত্তির পরিমাণও কমেছে। চলতি বছরে এ ধনকুবেরের সম্পত্তির পরিমাণ কমেছে ৭.২ বিলিয়ন ডলার। যদিও করোনার সময়েও এলভিএমএইচের পণ্য বিক্রির পরিমাণ ছিল ৬৮ বিলিয়ন ডলার- যা চলমান ক্ষতি অনেকটাই পুষিয়ে দিয়েছে।

বর্তমানে বার্নার্ড ও তার পরিবার কোম্পানিটির ৪৮ শতাংশ শেয়ারের মালিক। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে এলভিএমএইচ কোম্পানির অর্থমূল্য ৩৬৪ বিলিয়ন ইউরো- যা সারা ইউরোপে সর্বোচ্চ।

বার্নার্ড আর্নল্ট ১৯৪৯ সালে ফ্রান্সের উত্তরে রুবিয়াক্সে জন্মগ্রহণ করেন। বার্নার্ড পলিটেকনিক স্কুলে এলিট ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা শেষে পারিবারিক ব্যবসা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কন্সট্রাকশনে মনোনিবেশ করেন। পরবর্তীতে ১৯৮১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান এ ধনকুবের। সেখানে আবাসন ব্যবসা নিয়ে কাটান কিছুদিন। বার্নার্ড ১৯৮৪ সালে ফ্রান্সে ফিরে আসেন ও বিলাসবহুল পণ্যের ব্যবসা শুরু করেন। ফ্রান্সে দেউলিয়া হয়ে যাওয়া কোম্পানি বোজাক সেইন্ট ফেরেসের দায়িত্ব নেন বার্নার্ড আর্নল্ট। এ বোজাক সেইন্ট ফেরেসেরই একটি অংশ ছিল ক্রিশ্চিয়ান ডয়ের। পরবর্তীতে লুই ভিটন ও মোয়েট হেনেসিকে এলভিএমএইচের সঙ্গে এক করে ১৯৮৭ সালে কোম্পানিটির শেয়ার কিনে নেন এ ধনকুবের।

ত্রিশ বছরে বার্নার্ড আর্নল্টের হাত ধরে ইউরোপে বিলাসবহুল পণ্যের ভরসাস্থলে পরিণত হয় এলভিএমএইচ। শেম্পেইন, ওয়াইন, ফ্যাশনেবল পোশাক, চামড়াজাত পণ্য, ঘড়ি, গহনা, পারফিউম ও কসমেটিক পণ্যের এক বিরাট হাব এলভিএমএইচ। বর্তমানে সারাবিশ্বে এলভিএমএইচের সাড়ে ৫ হাজার স্টোর রয়েছে। কেবল ইউরোপ নয় নব্বই দশকের শেষে বেইজিং এ লুই ভিটনের দোকান খুলে চীনের বাজারেও নিজের আধিপত্য জানান দেন বিশ্বের এ শীর্ষ ধনকুবের।

বর্তমানে বার্নার্ডের বয়স ৭৩ বছর হলেও কোম্পানিটিতে বিশেষ ক্ষমতাবলে ৮০ বছর পর্যন্ত প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে থাকতে পারবেন এ ধনকুবের। বিগত কয়েক বছর ধরে বিলিয়নিয়ররা কার্বন নিঃসরণের জন্য বারবার অভিযুক্ত হতে থাকলে, চলতি বছর অক্টোবরে বার্নার্ড আর্নল্ট জানান, তিনি তার ব্যবহৃত ব্যক্তিগত জেট বিক্রি করে দিয়েছেন। জেট বিক্রি করে সে সময়ে বেশ আলোচনায় এসেছিলেন এ ধনকুবের।

ব্যক্তিজীবনে বার্নার্ড আর্নল্ট দুবার বিয়ে করেছেন এবং ৫ সন্তানের পিতা। আর্নল্টের পরিবারের প্রত্যেকেই তার প্রতিষ্ঠান এলভিএমএইচের সঙ্গে সম্পর্কিত। সম্প্রতি তার দ্বিতীয় সন্তান এন্টোনি ক্রিশ্চিয়ান ডয়েরের দায়িত্ব নিয়েছেন। প্রায় প্রতিদিনই অবসর সময়ে টেনিস খেলে সময় কাটান এ বিলিয়নিয়ার।

যেখানে বিশ্বের শীর্ষ ধনী মানেই টেক জায়ান্ট ও তেল-খনিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক, সেখানে বিলাসবহুল পণ্য বিক্রি করে বার্নর্ড আর্নল্টের শীর্ষ ধনী হওয়ায় অনেকটাই অবাক সংশ্লিষ্টরা। গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ফোর্বস তালিকার শীর্ষস্থানটি দখল করে ছিলেন টেসলার প্রধান ইলন মাস্ক। সে সময় তিনি আমাজান ডটকম-এর প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসকে হটিয়ে শীর্ষস্থানটি ছিনিয়ে নিয়েছেন। এবার সবাইকে হটিয়ে স্পটলাইটে থাকা শীর্ষ ধনী এখন ফ্রান্সের বার্নার্ড আর্নল্ট।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles