2.1 C
Toronto
রবিবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২২

পায়ের ঘাম-দুর্গন্ধ রোধে করণীয়

পায়ের ঘাম-দুর্গন্ধ রোধে করণীয়

জুতা খুললেই বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পায়ে বেশ দুর্গন্ধ হয়। আমাদের শরীরে অসংখ্য ঘামগ্রন্থি আছে। তাই জুতা পরা অবস্থায় অনেকেরই পা ঘামে। ঘামের সঙ্গে পানি, লবণ, তেল বা চর্বিজাতীয় পদার্থ ও বিপাকীয় আরও অনেক পদার্থ বের হয়।

- Advertisement -

পায়ে থাকা জীবাণু ঘর্মাক্ত, স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে এসব নিঃসরণ গ্রহণ করে নানান উচ্ছিষ্ট তৈরি করে। এগুলোর মধ্যে ‘আইসোভ্যালেরিক অ্যাসিড’ নামে এক ধরনের ফ্যাটি অ্যাসিড অন্যতম।

এর জন্যই পায়ে দুর্গন্ধের সৃষ্টি করে। সহজ কিছু কৌশল অবলম্বন করলে ঘাম-দুর্গন্ধ থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায়।

পায়ের দুর্গন্ধ রোধে করণীয়

  • পায়ে ড্রাই লোশন ব্যবহার করতে পারেন।
  • মোজায় অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল পাউডার লাগিয়ে নেওয়া যেতে পারে।
  • বাসায় ফিরে পা থেকে জুতা খুলে পায়ে পর্যাপ্ত বাতাস লাগাতে হবে। জুতাগুলোও এমন জায়গায় রাখতে হবে, যেন জুতার ভেতরে পর্যাপ্ত বাতাস প্রবেশ করে।
  • নাইলনের মোজার পরিবর্তে সুতির মোজা ব্যবহার করুন। সবসময় পরিষ্কার মোজা ব্যবহার করা।
  • ত্বকের মরা কোষগুলো অপসারণ করা আবশ্যক। এজন্য বেকিং সোডা ও ভিনেগার-যুক্ত কুসুম গরম পানিতে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখলে পায়ের পাতার মরা কোষগুলো নরম হয়ে আসবে। তারপর স্ক্র্যাবার দিয়ে ঘষে পা পরিষ্কার করে নিতে হবে।
  • জুতা ব্যবহারের পর রোদে শুকিয়ে নিন। জুতার ভেতরে ট্যালকম পাউডার, বোরিক এসিড বা দুর্গন্ধ-নাশক ব্যবহার করা যেতে পারে। কারণ, জুতা পরিষ্কার রাখলে ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে না।

পায়ের দুর্গন্ধ রোধে প্রাথমিক অবস্থায় এগুলো করা যেতে পারে। কিন্তু, এগুলো করার পরও যদি সমাধান পাওয়া না যায়, তাহলে দেরি না করে একজন বিশেষজ্ঞের কাছে যাওয়া উচিত। কারণ, এ সমস্যা দীর্ঘস্থায়ী রূপ নিতে পারে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles