5.1 C
Toronto
শুক্রবার, ডিসেম্বর ২, ২০২২

বিএনপির সমাবেশ ঘিরে সিলেটে অচলাবস্থা

বিএনপির সমাবেশ ঘিরে সিলেটে অচলাবস্থা

সিলেটে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ শনিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। দুই দিন আগে থেকেই সিলেটের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে দলটির নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন। এখনও অনেকে সমাবেশস্থলে আসছেন। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কেউ মোটরসাইকেলে করে, কেউবা অটোরিকশাসহ বিভিন্ন পন্থায় সিলেটে আসছেন। আবার কেউ কেউ হেঁটেও সমাবেশস্থলে আসছেন। জেলার সঙ্গে সারাদেশের গণপরিবহন বন্ধ থাকায় শুধু বিএনপি নেতাকর্মীরা নয়, ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরাও। পুরো সিলেটজুড়ে এক অচলাবস্থা তৈরি হয়েছে।

- Advertisement -

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের বাস চলাচল চলাচল বন্ধ রয়েছে। পরিবহন ধর্মঘট আগামীকাল শনিবার পর্যন্ত চলবে বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সিলেটের সবচেয়ে বড় বাস টার্মিনাল কদমতলীতে বিভিন্ন বাসের কাউন্টার বন্ধ রয়েছে। কোনো বাস ছেড়ে যায়নি এবং কোনো বাস সিলেটে প্রবেশও করেনি। একই অবস্থা সিলেটের কুমারগাও বাসস্ট্যান্ডেরও। সেখান থেকে সুনামগঞ্জে কোনো বাস চলাচল করছে না। বাস বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। টার্মিনালে এসে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

শ্রীমঙ্গলের বাসিন্দা রাহিমা খাতুন বলেন, আমি জরুরি কাজে বৃহস্পতিবার সিলেট এসেছিলাম। এখানে এসে শুনি বাস বন্ধ। এখন আমি কীভাবে বাড়ি যাব।

আরেক যাত্রী আব্দুল্লাহ আল জুবেদ বলেন, আমি ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশে বেলা ১১টায় হুমায়ুন রশীদ চত্বরের হানিফ পরিবহনের কাউন্টারে আসি। এসে দেখি কাউন্টার তালা মারা।

বিএনপি নেতাকর্মীদের অভিযোগ, শনিবার সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করতেই ধর্মঘট ডাকা হয়েছে।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল কবীর পলাশ গণমাধ্যমকে বলেন, আজ হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে পরিবহন ধর্মঘট চলছে। হয়তো এজন্য গাড়ি চলছে না। আর তিন দিন আগে ধর্মঘটের ঘোষণা দেওয়ায় যাত্রী নেই বললেই চলে। যাত্রী না থাকায় অনেকেই গাড়ি বের করেনি।

এদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও বিভিন্নভাবে বিএনপি নেতাকর্মীরা সিলেটের আশপাশের জেলা ও উপজেলাগুলোতে সমাবেশস্থলে আসছে। সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলা থেকে কয়েক শ মোটরসাইকেলে করে নেতাকর্মীরা সমাবেশে আসছেন। দুই দিন আগে থেকেই হাজারও নেতাকর্মী সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন। ইতোমধ্যে কয়েক হাজার নেতাকর্মী সমাবেশস্থলের আশপাশের হোটেল ও অস্থায়ী প্যান্ডেলে অবস্থান করছেন। সেখানেই তাদের রান্না-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সময় যত গড়াচ্ছে সমাবেশস্থলে ততই নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়ছে। খাওয়া-দাওয়া, স্লোগান এবং আড্ডা সবমিলিয়ে এক উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে সমাবেশস্থলে।

মাঠে অবস্থান করা সিলেট জেলা মহিলা দলের দপ্তর সম্পাদক সুলতানা রহমান দিনা বলেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে আমরা মাঠে নেমেছি। সফল না হওয়া পর্যন্ত আমরা মাঠেই থাকব।

প্রসঙ্গত, নিত্যপণ্য ও জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি, পুলিশের গুলিতে দলের নেতাকর্মীদের মৃত্যুর প্রতিবাদসহ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশের সব বিভাগে গণসমাবেশ করছে বিএনপি। চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর, বরিশাল, ফরিদপুরের পর শনিবার সিলেটে গণসমাবেশ করবে দলটি। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সূত্র : আরটিভি

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles