অধিকাংশ কানাডিয়ানই মডার্নার তৈরি এমআরএনএ ভ্যাকসিন নিতেই বেশি আগ্রহী

- Advertisement -
অধিকাংশ কানাডিয়ানই মডার্নার তৈরি এমআরএনএ ভ্যাকসিন নিতেই বেশি আগ্রহী

হেলথ কানাডা অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনকে নিরাপদ ও কার্যকর বললেও অধিকাংশ কানাডিয়ান ফাইজার-বায়োএনটেক অথবা মডার্নার তৈরি এমআরএনএ ভ্যাকসিন নিতেই বেশি আগ্রহী। ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন ইমিউনাইজেশন গত মে মাসে এক সুপারিশে জানায়, অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনে রক্ত জমাট বাঁধার মতো বিরল কিন্তু গুরুতর পাশর্^প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ায় এমআরএনএ ভ্যাকসিনকেই অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত। এ ঘোষণার পর অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ব্যবহার না করা প্রদেশগুলোতে ভ্যাকসিনটির উল্লেখযোগ্য মজুদ গড়ে ওঠে।

এদিকে, উদ্বৃত্ত ভ্যাকসিন থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার সাড়ে ৭ লাখ ডোজ এ পর্যন্ত অনুদান হিসেবে দিয়েছে কানাডা। গত দুই মাসে ক্যারিবিয়ান ও দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোকে এ অনুদান দেওয়া হয়েছে। তবে সামনে সপ্তাহগুলোতে এমআরএনএ ভ্যাকসিনের মজুদ থেকে আরও অনুদান দেওয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটি।

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী কারিনা গোল্ডের কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, গ্রীষ্মের শেষ দিকে ৭ লাখ ৬২ হাজার ৮০ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ছয়টি দেশে সরবরাহ করা হয়েছে। এই অনুদান দেওয়া হয়েছে দ্বিপক্ষীয় চুক্তির আওতায়, যা কোভ্যাক্সে কানাডার অংশগ্রহণ থেকে আলাদা।

২ কোটি ২০ লাখ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন সংগ্রহে সরবরাহকারকদের সঙ্গে চুক্তি করেছে কানাডা। এর মধ্যে মাত্র ৩০ লাখ ডোজ সরবরাহ করা হয়েছে, যা বিভিন্ন প্রদেশ ও অঞ্চলে প্রয়োগের জন্য পাঠানো হয়েছে। দ্বিপক্ষীয় এই অনুদানের বাইরে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলো ৪ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন বিতরণেও সম্মত হয়েছে কানাডা। এর মধ্যে ২৭ লাখ ডোজ আফ্রিকা এবং সেন্ট্রাল ও দক্ষিণ আমেরিকায় সরবরাহ করা হয়েছে।

- Advertisement -

কোভ্যাক্সের আওতায় বেশিরভাগ ভ্যাকসিনই সরবরাহ করেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার উৎপাদকরা। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বর্তমানে সরবরাহ সঙ্কটের কারণে বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত চীনের সিনোফার্ম প্রস্তুতকৃত ভ্যাকসিন গ্রহণেরও সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। উদাহরণ হিসেবে কোভ্যাক্সে কানাডার আর্থিক সহায়তায় সিকারাগুয়া ও জিম্বাবুয়েতে ভ্যাকসিন সরবরাহ সম্ভব হয়েছে।

- Advertisement -

সিনোফার্মের ভ্যাকসিন প্রয়োগের অনুমোদন দেয়নি কানাডা। হেলথ কানাডা অনুমোদিত নয় এমন ভ্যাকসিন গ্রহীতা আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড হিসেবে বিবেচনা করছে না দেশটি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles