5.1 C
Toronto
মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২২

৬১ বছর বয়সে ৮৮তম বিয়ে কৃষকের!

৬১ বছর বয়সে ৮৮তম বিয়ে কৃষকের!

নাম তার কান। পেশায় একজন কৃষক। ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাভার মাজালেংকার এলাকার বাসিন্দা। বর্তমানে তার বয়স ৬১ বছর। এই বয়সে ৮৮তম বিয়ে করছেন তিনি।

- Advertisement -

জানা গেছে, ১৪ বছর বয়সে প্রথম বিয়ে করেছিলেন কান। সেই থেকে শুরু। এবার ৮৮তম বিয়েটি সেরে ফেলতে প্রস্তুত এই বৃদ্ধ। এরই মধ্যে তার ‘কীর্তির’ জন্য ইন্দোনেশিয়ায় ‘প্লেবয় কিং’ নামে বেশ খ্যাতি পেয়েছেন।

এবার তার সেই খ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। ৬১ বছর বয়সী কান জানিয়েছেন, তিনি কোনও নারীকে ফিরিয়ে দিতে পারেন না।
তবে এবার যাকে বিয়ে করছেন কান, সেই পাত্রী কানেরই ৮৬তম স্ত্রী ছিলেন। নিজের প্রাক্তন সহধর্মিনীকে ফের স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করতে চান তিনি। কান বলেন, “বহু দিন আগে আমরা আলাদা হয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমাদের সেই ভালবাসা আজও প্রবল।”

কান জানিয়েছেন, পাত্রীও তাকে খুব ভালবাসেন। সেই কারণেই ফের একসঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত। তবে তাদের প্রথম দফার বিয়ে সেবার এক মাসের বেশি টেকেনি।

কান ১৪ বছর বয়সে যে নারীকে প্রথম বিয়ে করেছিলেন, সেই কনের ছিল তার থেকে দুই বছরের বড়। বিয়ে ভাঙার জন্য নিজেকেই দুষেছেন কান। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, “আমার আচরণ সেই সময় খুব খারাপ ছিল। আমার খারাপ ব্যবহারের জন্যই দু’বছর পরে বিবাহবিচ্ছেদ চেয়েছিলেন আমার প্রথম স্ত্রী।” তবে খারাপ ব্যবহার বলতে তিনি কী বলতে চেয়েছেন, তা উল্লেখ করেননি।

কান জানিয়েছেন, প্রথম বিয়ে ভাঙার পরে তার রাগ হয়। আধ্যাত্মিক জ্ঞান আহরণের দিকে ঝোঁকেন তিনি। এই সময়ই ঠিক করে নিয়েছিলেন, এবার বহু নারী তার প্রেমে পড়বেন। কানের কথায়, “সে যাই হোক, নারীদের জন্য অসম্মানজনক, এমন কোনও কাজ আমি করি না। কারও মন নিয়ে খেলাও করি না।” বিগত ৮৭ বিয়েতে কানের কতগুলো সন্তান রয়েছে, তা জানা যায়নি।

সূত্র: ডেইলি স্টার ইউকে, বিজনেস টুডে এমওয়াই, মালয়মেইল

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles