5.2 C
Toronto
মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

স্ত্রীর মরদেহ রেখে দৌড়ে পালালো স্বামী!

স্ত্রীর মরদেহ রেখে দৌড়ে পালালো স্বামী!

রাজধানীর খিলগাঁও উত্তর গোড়ানের বাসা থেকে জান্নাত বেগম (২৩) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার স্বামী পালিয়েছে বলে জানিয়েছেন জান্নাতের বাবা।

- Advertisement -

মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে উত্তর গোড়ান নবীনবাগ হাজী মসজিদ রোডের একটি বাসা থেকে জান্নাতের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে খিলগাও থানা পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য বিকেলে মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

খিলগাও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোসাম্মৎ সোনিয়া পারভীন বলেন, মৃত জান্নাত স্বামী কাওছার এক ছেলে এবং স্বামীর পরিবারের সঙ্গে উত্তর গোড়ানের বাসায় থাকতেন। সকালে পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া হয়। এরপর জান্নাত ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন। কিছুক্ষণ ডাকাডাকির পর কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যায়নি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দরজা ভেঙ্গে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এসআই আরও বলেন, ঘটনাস্থলে জান্নাতের স্বামী কাউছারকে পাওয়া যায়নি। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

এদিকে মৃত জান্নাতের বাবা আবুল কাশেম বলেন, গত দুই বছর আগে সিএনজিচালক কাউছারের সঙ্গে জান্নাতের বিয়ে হয়। তাদের এক বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে। বেশ কয়েক দিন ধরে কাউছার ঘরে কোনো খরচ দিতো না। নেশাপানি করতো। কিছু বললে জান্নাতকে মারধর করতো। শাশুড়ি ও ভাসুর খারাপ ব্যবহার করতো জান্নাতের সঙ্গে।
আবুল কাশেম বলেন, দুই ছেলে এক মেয়ের মধ্যে জান্নাত ছিল বড়। আমরা নিজেরাও খিলগাঁও আদর্শবাগ এলাকায় থাকি। সকালে এলাকার লোকজনের মাধ্যমে জানতে পারি জান্নাত গলায় ফাঁস দিয়েছে। খবর পেয়ে জান্নাতদের বাসায় গিয়ে দেখি তার স্বামী কাউছার দৌড়ে পালাচ্ছে। শারিরীক ও মানসিক নির্যাতনের কারণে আমার মেয়ে গলায় ফাঁসি দিয়ে থাকতে পারে। আমি কাউছারসহ তার পরিবারের বিরুদ্ধে আত্মহত্যা প্রচোরণার মামলা করবো।

সূত্র : বাংলানিউজ

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles