29.3 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

বিশ্বের লাখো পাঠক পয়সা দিয়ে পড়েন লামইয়ার বই

বিশ্বের লাখো পাঠক পয়সা দিয়ে পড়েন লামইয়ার বই
লামইয়া জাহান এশা ছবি কাকলী প্রধান

শখের বশেই লেখালেখি শুরু করেছিলেন। এখন সেটাই লামইয়া জাহান এশার আয়ের বড় উৎস। ওয়াটপ্যাট, গুডনোবেলের মতো বিখ্যাত অনলাইন প্ল্যাটফরমের নিবন্ধিত লেখক তিনি। বিশ্বের লাখো পাঠক পয়সা দিয়ে পড়েন তাঁর বই। বাবা নেই। পরিবারও চলে তাঁর লেখালেখির টাকায়। বীরশ্রেষ্ঠ নূর

শৈশবে প্রচুর বই পড়তাম। তবে বাসায় তখন এত বই ছিল না। স্কুলের লাইব্রেরি ছিল ভরসা। দিনের বেশির ভাগ সময় ওখানে থেকে পড়তাম পছন্দের বই।

- Advertisement -

তখন চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ি। একদিন স্কুলে বার্ষিক ম্যাগাজিনের জন্য লেখা আহবান করে। একটি কবিতার জমা দিই। ভয় পাচ্ছিলাম লেখাটা যদি প্রকাশিত না হয়। কিন্তু ম্যাগাজিনে ছাপার অক্ষরে নিজের নাম দেখে আমার আনন্দ দেখে কে! তবে তখন লেখার চেয়ে পড়তেই আগ্রহ বেশি পেতাম। একসময় ভিন্ন ধরনের বই পড়া শুরু করলাম; মোবাইলে, যাকে বলে ওয়েব নভেল। Wattpad ওয়েব নভেল লাইব্রেরি হয়ে ওঠে আমার ভার্চুয়াল লাইব্রেরি। সেখান থেকে ‘Little women’, ‘The Spring Girls’, ‘Eve’-এর মতো বেশ ভালো কিছু বই পড়তে পেরেছিলাম।

বছর দুই আগের কথা। করোনায় বন্দিজীবনে যখন বই পড়তে পড়তে একঘেয়েমি চলে আসে, তখন হঠাৎ করেই Wattpad-এর বিভিন্ন ফিচার ঘাঁটতে থাকি। দেখলাম অ্যাপসটিতে লেখক হিসেবে যুক্ত হওয়ার সুযোগ আছে। মনে হলো সুযোগটা লুফে নিলে কেমন হয়! কিশোর অ্যাডভেঞ্চার আমার প্রিয়। এই বিষয়টা দিয়েই জীবনের প্রথম বই লেখা শুরু করি। প্রথম বইটা লিখতে সময় kalerkanthoলেগেছিল প্রায় চার মাস। শুরুতে এই বইয়ের পাঠক ছিল শত শত টিনএজার। দুই সপ্তাহের মধ্যে সংখ্যাটা ঠেকে গেল লাখের ঘরে। হঠাৎ এক দিন একটি ই-মেইল পেলাম। একটা পেইড ওয়েব নভেল কম্পানি আমাকে পেইড রাইটার হিসেবে তাদের কম্পানিতে চায়। কিছুদিন সময় নিলাম ভাবার জন্য। দেখলাম, অল্পদিনের মধ্যেই পেইড রাইটারের অফারে আমার মেইল বক্স ভরে যায়। কিন্তু এসব বিষয়ে কোনো ধারণা না থাকায় কম্পানিগুলো নিয়ে গুগলে ঘাঁটাঘাঁটি করলাম। তখন চীনের Webnovel কম্পানির অফারটি বেশি নির্ভরযোগ্য মনে হয়। তাই তাদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে পেইড রাইটার হিসেবে যাত্রা শুরু করি। এরপর আরো বেশ কিছু কম্পানির সঙ্গে যুক্ত হই। ২০২০ সালে এসএসসির পর লেখালেখি শুরু করি পুরোদমে। প্রথম দিকে সবাই বলত, এসব মেইলের মাধ্যমে প্রতারকরা অনলাইন থেকে তথ্য হাতিয়ে নেয়। তবে আম্মু আমাকে উৎসাহ দেন।

আমার লেখা প্রথম বই ‘Graceful Disaster’। আমার দ্বিতীয় বই ‘Maze of Fate’। বইটি প্রকাশ করেছিল সিঙ্গাপুরের Goodnovel। এ পর্যন্ত ছয়টি নভেল লিখেছি, একটি Webnovel-এর কাছে এবং বাকি পাঁচটি Goodnovel-এর সঙ্গে পাঁচ বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ। প্রথম বইটি কিশোর অ্যাডভেঞ্চার। বাকিগুলো সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখা। এর মধ্যে এডিটরের পরামর্শে অতিপ্রাকৃত বিষয় নিয়ে লেখার চেষ্টা করেছি, যা অল্প সময়ে পাঠকদের কাছে বেশ প্রিয় হয়ে ওঠে। পরবর্তী বইটিও এই বিষয় নিয়ে লিখব বলেই ভাবছি।

আমি কিছুটা অন্তর্মুখী স্বভাবের। সে জন্য বই পড়া এবং লেখা আমার জন্য এক প্রকার আশীর্বাদ হয়ে আসে। নিজের ভবিষ্যৎ নিজেই গড়ে তোলার চেষ্টা করছি প্রতিনিয়ত। বই পড়া ছিল আমার শখ, লেখাটাও। সেই শখ এখন আমার আয়ের উৎস। ২০২১ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বাবা মারা যান। তিনি উবার চালাতেন। এখন মা আর দুই ভাই-বোনকে নিয়েই আমাদের সংসার। আমার লেখালেখির আয় দিয়েই সেটা চলছে ভালোভাবে। আমি লেখি ইংরেজিতে। এডিটর সম্পাদনার পর সেটা পাঠকের জন্য উন্মুক্ত করে দেন। ওয়েবসাইটে লগ ইন করেই পড়া যায়। পাঠকের কাছ থেকে আয়ের ৬০ শতাংশ আমার অ্যাকাউন্টে পাঠায় কম্পানি।

ওয়েব নভেল প্ল্যাটফরম সবার জন্য উন্মুক্ত। যে কেউ এসব প্ল্যাটফরমে যুক্ত হতে পারেন। লেখক হিসেবে যুক্ত হতে হলে কম্পানিগুলোর ওয়েবসাইটে প্রথমে লেখা জমা দিতে হয়। এরপর চুক্তির জন্য আবেদন করতে হয়। পরে কম্পানি সেই আবেদন রিভিউ করে সিদ্ধান্ত নেয় লেখক হিসেবে তাঁর সঙ্গে চুক্তি করবে কি না। এসব প্রতিষ্ঠানের কিছু চাহিদা থাকে। তারা কিছু নির্দিষ্ট বিষয়কে কেন্দ্র করে চুক্তির অফার করে। যেমন : কিশোর অ্যাডভেঞ্চার, উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনার সমষ্টি, সুপারন্যাচারাল, সায়েন্সফিকশন, সমসাময়িক জীবনকাহিনি, পৌরাণিক কাহিনি ইত্যাদি। বর্তমানে লিখছি Goodnovel-এ। এই কম্পানির সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা আমার সবচেয়ে ভালো।

ছোটবেলা থেকেই স্কুলের সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় কবিতা আবৃত্তিতে অংশ নিয়ে পুরস্কার পেয়েছি। ২০১৮ সালে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত দেশব্যাপী কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় চতুর্থ হয়ে কবি নির্মলেন্দু গুণের কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করি।

আমার পাঠক বিশ্বব্যাপী ছড়ানো, তাঁরা প্রতিনিয়ত আমাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন লেখা চালিয়ে যাওয়ার জন্য। তাঁদের উৎসাহপূর্ণ কথা আমাকে অনুপ্রাণিত করে। ভবিষ্যতে প্রিন্ট ভার্সনে বই প্রকাশের আগ্রহ আছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles