12.7 C
Toronto
বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২

৬ বছর পর মজুরির ১৯ লাখ টাকা পেলেন সৌদিফেরত নারী

- Advertisement -

সৌদি আরবে প্রায় ছয় বছর নিরুদ্দেশ থাকা এক নারী গৃহকর্মীকে উদ্ধার করেছে সেখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস। একই সঙ্গে তাঁর নিয়োগকর্তা সৌদি নাগরিকের কাছ থেকে আদায় করা হয়েছে ছয় বছরের প্রাপ্য বেতন ভাতার ১৯ লাখ ৩৬ হাজার টাকা।

নূর নাহার নামের এই কর্মী গতকাল সোমবার দেশে নিজের ব্যাংক হিসাবে মজুরির টাকা পেয়েছেন বলে আজকের পত্রিকাকে জানিয়েছেন দূতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম।

২০১৬ সালে মানসিক ভারসাম্যহীন স্বামী এবং একমাত্র কন্যাকে রেখে ভাগ্য ফেরানোর আশায় গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরবে যান তিনি। যাওয়ার পর পরিবারের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। দীর্ঘ ছয় বছর অতিবাহিত হওয়ায় তাঁকে ফিরে পাওয়ার আশা একরকম ছেড়েই দেয় তাঁর পরিবার। অপরদিকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে নূর নাহারও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

বিষয়টি বাংলাদেশ দূতাবাসের নজরে এলে নূর নাহারকে রিয়াদের হোতা বনি তামিম এলাকা থেকে উদ্ধার করে সেফহোমে আশ্রয় দেওয়া হয়। তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। তিনি বাংলাদেশে নিজের পুরো ঠিকানাও ঠিকমতো বলতে পারছিলেন না। এ অবস্থায় পাসপোর্টে বর্ণিত ঠিকানা ও ছবি পাঠিয়ে রাঙ্গুনিয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) সহায়তায় তাঁর পরিবারের সঙ্গে দূতাবাসের শ্রমকল্যাণ উইংয়ের যোগাযোগ হয়। এরপর গত জুলাই মাসে দূতাবাসের তত্ত্বাবধানে তাঁকে দেশে পরিবারের কাছে পাঠানো হয়।

ওই নারীর বাবা আবুল কালাম জানান, সৌদি আরবে যাওয়ার পর দীর্ঘ ছয় বছর দেশে কোনো টাকা পাঠাননি নূর নাহার। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দূতাবাসের শ্রমকল্যাণ উইং নূর নাহারের সৌদি নিয়োগকর্তাকে খুঁজে বের করে। শেষ পর্যন্ত নিয়োগকর্তার কাছ থেকে নিয়োগচুক্তির শর্তমোতাবেক ছয় বছরের সমুদয় পাওনা বেতন-ভাতা বাবদ মোট ৬৮ হাজার ১৭ সৌদি রিয়ালের সমপরিমাণ ১৯ লাখ ৩৬ হাজার ৬৪৮ টাকা আদায় করা সম্ভব হয়।

নূর নাহারের আর্থিক নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাসের সোনালী ব্যাংক প্রতিনিধির সহায়তায় তাঁর নামে সংশ্লিষ্ট সোনালী ব্যাংকে একটি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়। ওই অ্যাকাউন্টে সমুদয় পাওনা টাকা জমা করা হয়।

দীর্ঘদিন পর কষ্টার্জিত অর্থসহ মেয়েকে ফিরে পেয়ে আবুল কালাম কান্নায় ভেঙে পড়েন। তিনি সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

Related Articles

Latest Articles