12.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

ইনফ্লেশন কমে আসছে

- Advertisement -
ছবি/ ম্যাক আর্থার

সারাদিন প্রচন্ড গরমের পর সন্ধ্যায় একপশলা বৃষ্টি হয়ে কিছুটা আরাম বোধ হচ্ছে। এই মাঝরাতে ওয়েদার খুব হিউমিড, তাই ঘাম হচ্ছে। অথচ সেপ্টেম্বর মাস এলো বলে..।
পৃথিবীর হচ্ছেটা কী?

ফ্রিজে ঠান্ডা তরমুজ আছে, সন্ধ্যায় কেটে রেখেছিলাম। হাত হাঁটুতে ভর দিয়ে, ঝুকে ফ্রিজের ভেতরটা স্ক্যান করতে থাকি। আম্মার পাঠানো মাংসগুলো খুব সাবধানে খাচ্ছি; পাছে শেষ হয়ে যায়। গিন্নি ভালো বুদ্ধি করেছে। অর্ধেকটা খাওয়ার পর বাকি অর্ধেক ভুঁড়ি আর মাংস আলু দিয়ে আবার সামান্য ঝোলঝোল করে ফেলেছে। বেশ হয়েছে, শুকনো ভাব কমলেও ভাজা ফ্লেভারটা অটুট আছে। আরো কয়েকদিন যাবে। এখন ওগুলোয় হাত দেব না। রাতের বেলায় গুরুপাক কিছু না গেলাই ভালো।

একটা ছোট্ট কন্টেইনারে চিংড়ি শুঁটকি ভর্তা। জিনিস যা হয়েছিল! গিন্নি রেড র্র্যাডিস (এক ধরণের লাল, গোল মার্বেল সাইজের মুলা) দিয়ে ভর্তা করেছিল। দুনিয়ার বেস্ট শুঁটকি ভর্তাটা সেদিন খেয়েছিলাম। আরও আছে পাস্তা, প্রচুর চিজ দেওয়া। এটাতেও হাত দেব না, কাল অফিসে নিয়ে যাবো। সংযমের ফল খুব মধুর।

তরমুজ, আঙ্গুর বাটিতে রেখে লেটুশ, ক্যাপসিকাম, টমেটো চপিং বোর্ডে কুচি করে নিয়ে দুই পিস পাউরুটি বের করে টোস্টারে ঢুকাই। একটা টোস্টেড পাউরুটিতে সামান্য মেয়োনেজ মাখিয়ে, সবজি কুচি রেখে পর্যাপ্ত তুখোড় এক্সট্রা ঝাল মরিচের সস ছিটিয়ে দুই স্লাইস চিজ রাখি। এবার এয়ার ফ্রায়ারে দেড় মিনিট চারশো ডিগ্রিতে হিট দিয়ে চিজ গলিয়ে ফেলি। আরেক পিস পাউরুটিতে শুঁটকি ভর্তা স্প্রেড করে লেটুশ রেখে চিজ গলানো পাউরুটির উপরে বসিয়ে দেই। ব্যাস, গরম ওয়েদার আর ঝাল স্যান্ডউইচ; কাটাকাটি!
চায়ের পানি বসিয়ে টিভি ছেড়ে দেই।

ইনফ্লেশন কমে আসছে। তেলের দামও কমছে বিশ্বজুড়ে। ইউক্রেন যুদ্ধ, পাকিস্তানের বন্যা, চাঁদে রকেট পাঠানো স্থগিত; এইসব নিউজ। আমি বিসমিল্লাহ বলে স্যান্ডউইচে কামড় বসিয়ে স্বাদ নেবার চেষ্টা করতে থাকি। উদাস ভঙ্গিতে আরাম করে বিছানায় আরাম করে বসি। মানুষ আসলে ট্রাই করতে চায় না। কত উপকরণ যে আমাদের আশপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে! একবার করে কামড় বসিয়ে স্যান্ডউইচের বাকি অংশটার দিকে চেয়ে চিবাতে থাকি। খাসা জিনিস হয়েছে! চিজের সাথে শুঁটকি এতো ভালো যায়? আশ্চর্য্য! চিজ-শুঁটকির বাষ্প দিক পরিবর্তন করে, অর্থাৎ পেটের মধ্যে না নেমে আবার ঊর্ধ্বমুখী হয়ে নাসিকা গহবরে প্রবেশ করে কুন্ডলী পাকিয়ে যেন গাদন খেলছে..

হঠাৎ কি মনে করে শেষ করার আগেই স্যান্ডউইচের এক তৃতীয়াংশ কেটে রেখে দিলাম। বাকিটুকু সাবাড় করে ঠান্ডা তরমুজের বাটি হাতে তুলি। আমার টাক বেয়ে ঝরঝর করে ঘাম ঝরতে লাগলো। নাগা মরিচ খেলে যেমন সারা মাথা ঘেমে ভিজে চুপচুপা হয়ে যায় রসালো জাম্বুরার মতো!

আসলে হাজার গরমেও চা না হলে চলে না। রাজশাহীতে থাকতে তীব্র গরমেও যেমন দুপুরে খাওয়ার পর ছাপড়া দোকানের দু-কাপ মালাই চা পেটে চালান না করলে শান্তি পেতাম না। এ জগতে দুটা আবিষ্কার মানবজাতির জন্য সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ; নিউক্লিয়ার ফিশন আর চা।

সেদিন বিবিসি বাংলায় দেখলাম চা বা পানীয় বেশি গরম অবস্থায় খেলে মুখে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে। তাই এরপর থেকে আর বেশি গরম খাই না। শেলফ হাতড়িয়ে চানাচুর আর কিসমিসের কৌটা পেরে এক মুঠো করে পিরিচে রাখি। কিসমিস খুব ভালো ডেজার্ট। ওগুলোসহ চা হাতে আবার টিভির সামনে বসি।
সুখবরই মনে হলো।

ন্যাটো মহাসচিব স্টলটেনবার্গ আর জাস্টিন ট্রুডো নতুন চুক্তিতে যাচ্ছে। কানাডার উত্তরে নিরাপত্তা চৌকি বসাবে। এই স্টলটেনবার্গ কিন্তু আবার নরওয়ের সাবেক প্রধানমন্ত্রীও ছিলেন! পুতিন যদি মিযাইল ছোড়ে, সেটাকে কানাডার মাটিতে পড়বার আগেই ভূপাতিত করবার প্ল্যান। আইডিয়াটা খারাপ না। তৃতীয় মহাযুদ্ধ বেঁধে গেলে প্ল্যান কাজে দেবে, যদিও পুতিনের সুপারসনিক মিযাইল ফেলা চাট্টিখানি কথা না। সব তো আর ফেলতে পারবে না, দশটার মধ্যে হয়তো ছয়টা ফেলবে?

তবে আমি নিশ্চিত ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট হন্য হয়ে পারমাণবিক বোমা খুঁজছে। হয়তো কোনো দেশ গোপনে দিয়েও ফেলবে তার হাতে! তখন?
যাক গে, যা হবার হবে..

খাওয়া শেষ করে দুই কাপে দুধ ঢেলে মাইক্রোতে মিডিয়াম গরম করে ট্রে-তে তুলে, বাকি স্যান্ডুইচটা পিরিচে নিয়ে, ডাইনিং টেবিল থেকে এক মুঠো টফি লজেন্স, দইটা ব্রাজিলের মিষ্টি পাকা আম, ছোট ফ্রিজ থেকে দুটা মিল্কবার আইসক্রিম নিয়ে খুব সাবধানে ট্রে হাতে সিঁড়ি বেয়ে উঠতে থাকি।
স্যান্ডুইচটা গিন্নিকে দিয়ে দেখি ও কি বলে..
ভালো জিনিস একা খেয়ে মজা নাই..

অটোয়া, কানাডা

Related Articles

Latest Articles