25.3 C
Toronto
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২

‘১ লাখ টাকা না দিলে আমাকে মেরে ফেলবে’

- Advertisement -
‘১ লাখ টাকা না দিলে আমাকে মেরে ফেলবে’
অপহৃত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী স্বপন ফকির

‘বোন তুমি আমারে বাঁচাও। আমার চোখ বান্ধা। ওরা আমারে ধরে কোমনে নিয়া আইছে কইতে পারি না। আমারে বাঁচাইতে হইলে এক লাখ টাকা ম্যানেজ কইরা দেও আপু। নইলে ওরা আমারে মাইরা হালাইবে।’

গত রোববার রাত ১১টা ৪৮ মিনিটে বড় বোন হোসনে আরা বেগমের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে এমন আকুতি জানান অপহৃত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী স্বপন ফকির (৩২)। এরপর থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত তাঁর সন্ধান মেলেনি।

এ ঘটনায় সোমবার স্বপনের ভাই নিজাম ফকির বাদী হয়ে রাঙ্গাবালী থানায় জিডি করেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অপহৃত স্বপন ফকিরের বাড়ি জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চরলতা এলাকায় এবং তিনি ওই এলাকার বারেক ফকিরের ছেলে।

স্বপন ফকিরের পরিবার জানায়, ডাল বিক্রি করতে গত শুক্রবার পাশের উপজেলা গলাচিপায় যান স্বপন। ডাল বিক্রির ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও বোনের স্বর্ণালংকার নিয়ে রোববার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী এলাকা হয়ে নিজ বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন স্বপন। রাত ৯টার দিকে ডাঙার খেয়া পার হয়ে নিজ গ্রাম উত্তর চরলতা গাছবন এলাকা পৌঁছান তিনি। সেখান থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালককে ফোন করেন। কিন্তু মোটরসাইকেল চালক এসে তাঁকে ফোন করলে তা বন্ধ পান।

এর পরই রাত ১১টা ৪৮ মিনিটে বোন হোসনে আরা বেগমের মোবাইল ফোনে স্বপন ওই কলটি দেন।

চালিতাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে পুলিশ ও র্যাবের সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান জানান, স্বপন ফকিরের ভাই নিজাম ফকির থানায় জিডি করেছেন। এখনও তাঁর (স্বপন) কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। তবে তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles