25.3 C
Toronto
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২

দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক!

- Advertisement -
দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক! - The Bengali Times
প্রতীকী ছবি

স্কুল জীবন থেকে কলেজ। দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক। বছরে কয়েকবারই বিয়ের দিন তারিখ ধার্য করেও বিয়ে করেনি প্রেমিক। এই অবস্থায় হঠাৎ জানতে পারেন, চারদিন পরেই প্রেমিক ধুমধামে বিয়ে করছে।

আর এ খবরেই প্রেমিকা বিয়ের দাবি নিয়ে গত তিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছে বিষের বোতল নিয়ে।
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের চরআলগী গ্রামের কাজিম উদ্দিনের বাড়িতে ওই প্রেমিকা অবস্থান করছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই গ্রামের কাজিম উদ্দিনে ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৮) এর সঙ্গে নবম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় পাড়ার এক মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বর্তমানে ওই মেয়ে ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী একটি কলেজে অনার্সে পড়ে।

মেয়েটি জানান, স্থানীয় স্কুল থেকে এসএসসি পাস করে ময়মনসিংহ জেলা শহরে চলে যান। সেখানে একটি মেসে থেকে পড়ালেখা চালিয়ে যান। এর মধ্যে দেলোয়ারের একটি বেসরকারি সংস্থায় চাকরি হলে তাঁকে বিয়ে করার কথা বলে শারীরিক সসম্পর্ক গড়ে তোলেন। চাকরি হওয়ার পর কেন বিয়ে করছে না প্রেমিক দেলোয়ারকে এ প্রশ্ন করলে তিনি বেশ কয়েকটি তারিখ দিয়েও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে কালক্ষেপণ করতে থাকেন। এর মধ্যে জানতে পারেন, দেলোয়ারকে অন্যত্র বিয়ে করানোর জন্য পরিবারের লোকজন পাত্রী দেখা শুরু করেছে। গত বুধবার তিনি নিশ্চিত হন, ময়মনসিংহ শহরের সুতিয়াখালি এলাকায় প্রেমিকের বিয়ের তারিখ ধার্য হয়েছে ২৬ মে। পরে ঘটনাটি শতভাগ নিশ্চিত হতে তিনি দেলোয়ারকে ফোন করলে ফোন রিসিভ না করায় গত শুক্রবার বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিক দেলোয়ারের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেন। আজ রবিবার রাত ৯টা পর্যন্ত তিনি ওই বাড়িতে থাকলেও দেলোয়ার গাঢাকা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে ফোন দিলে দোলোয়ার মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। তবে দেলোয়ারের চাচা কলিম উদ্দিন জানান, বিষয়টি নিয়ে পুরো পরিবার খুবই বিব্রত। চেষ্টা করছেন সামাজিকভাবে মীমাংসা করার।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles