-5.2 C
Toronto
মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩১, ২০২৩
- the Bengali Times
কানাডার বৃহত্তম বাংলাদেশী সংগঠন চট্টগ্রাম সমিতি ও চট্টগ্রাম ভাইকিংস এর উদ্যোগে ক্রিকেট খেলোয়ারদের মাঝে জার্সি বিতরণ করা হয়েছে

একদিকে কানাডায় শুরু হয়েছে সামার, অন্যদিকে করোনায় দু বছর ঘর বন্দী থাকার পর আউটডোর প্রোগ্রামগুলো যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে। গত শনিবারে কানাডার বৃহত্তম বাংলাদেশী সংগঠন চট্টগ্রাম সমিতি ও চট্টগ্রাম ভাইকিংস এর উদ্যোগে ক্রিকেট খেলোয়ারদের মাঝে জার্সি বিতরণ অনুষ্ঠানে আমরা।

উল্লেখ্য চট্টগ্রাম আমার অত্যন্ত প্রিয় শহর। আমার স্ত্রীর কলেজ জীবন কেটেছে চিটাগাং। আমি যখন প্রথম চিটাগাং শহর হয়ে কক্সবাজার ভ্রমনে যাই তখন আমার বয়স ১৫/১৬। প্রথম উড়োপ্লেনে ভ্রমন করে ঢাকা থেকে সে সময় চট্টগ্রাম যাই। পতেঙ্গা সৈকতে ঘুরাঘুরি করি। দুবছর পর আবার যাই, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হোষ্টেলে ডাঃ ফারুকের রুমে রাত্রি যাপন করি। সম্ভবত বাটালি হিল বা এরকম একটা পাহাড়ের টিলায় আরোহন করি, বায়োজিদ বোস্তামির মাজারে যাই, কচ্ছপদেরকে খাবার দেই। এইতো ক বছর আগেই ঘুরে এলাম বাংলাদেশ তথা পৃথিবীর অন্যতম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভুমি নীলগিরি থেকে। চট্টগ্রাম মানেই এক অন্যরকম শিহরন।

- Advertisement -

সেই চট্টগ্রাম সমিতির বর্তমান প্রেসিডেন্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং আমার ছাত্র জীবনের রাজনৈতিক সহযোদ্ধা ইলিয়াস ভাই, সেক্রেটারী মন্জুর ভাই আমার বিশেষ প্রিয় ও ভালবাসার মানুষ। সংগঠনের অন্যতম নেতা ও ক্রীড়া সংগঠক হাসান ভাই সহ আরো অনেক বৃহৎ হৃদয়ের মানুষ এই শহরে বাংলাদেশী কমিউনিটিকে নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। চিটাগং ভাইকিংস এর এই উদ্যোগ একদিন টরন্টোতে বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলোয়ারদেরকে অন্যান্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে বলে দৃঢ় আশা রাখি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles