19.8 C
Toronto
শনিবার, মে ২৮, ২০২২

ইফতার পর্যন্ত প্রাণভিক্ষা চেয়েছিলেন যুবক, তবু প্রকাশ্যে হত্যা

- Advertisement -

ইফতার পর্যন্ত প্রাণভিক্ষা চেয়েছিলেন যুবক, তবু প্রকাশ্যে হত্যা - The Bengali Times

কক্সবাজার সদর উপজেলার চেরাংঘর বাজারে প্রকাশ্যে এক যুবককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। নিহত মোরশেদ আলী ওরফে বলী মোরশেদ (৩৮) সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের মাইজপাড়ার মৃত মাওলানা ওমর আলীর ছেলে।

- Advertisement -

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মোরশেদের ওপর যখন হামলা হয় তখন তিনি হামলাকারীদের বলছিলেন, সারা দিন রোজা রেখে বেশি ক্লান্ত, তোমাদের পায়ে পড়ি, মারতে চাইলে ইফতারের পর মারিও।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মোরশেদ।

নিহত মোরশেদের ভাই জয়নাল আবেদীন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে ৬টার দিকে ইফতার সামগ্রী কিনতে চেরাংঘর বাজারে যান মোরশেদ। সেখানে মাহমুদুল হক, জয়নাল, কলিম উল্লাহসহ তাদের গোষ্ঠীর ১৫-২০ জন লোক লোহার রড, ছুরি ও লাঠি নিয়ে মোরশেদ আলীর ওপর হামলা চালান। তখন তিনি হতবিহ্বল হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এরপরও তাকে মাটিতে ফেলে মারধর করে ও কুপিয়ে চলে যান হামলাকারীরা। স্থানীয়রা মোরশেদকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে আইসিইউতে স্থানান্তর করার পর চিকিৎসকরা রাত ৮টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জয়নাল আবেদীন আরও জানান, মোর্শেদ অনেক দিন ধরে সরকারি একটি সেচ প্রকল্প ইজারা নিয়ে পরিচালনা করে আসছিলেন। সেই সেচ প্রকল্পটি মাহমুদুল হকসহ স্থানীয় কয়েকজন দখল করে নেন। এ নিয়ে মোর্শেদের সঙ্গে তাদের বিরোধ চলছিল।

জয়নাল আরও জানান, কিছু দিনের মধ্যে ওই সেচ প্রকল্পটির নতুন করে ইজারা হওয়ার কথা আছে। ইজারা পেতে মোর্শেদ আবেদন করে রেখেছিলেন। এ নিয়ে ক্ষিপ্ত ছিলেন মাহমুদুল। বৃহস্পতিবার বিকেলে এলাকার বাজারে ইফতারি কিনতে গেলে মোর্শেদের ওপর হামলা চালায় মাহমুদুল, মো. জয়নাল, কলিম উল্লাহসহ অন্তত ২০ জন।

সদর থানার ওসি সেলিম জানান, হামলাকারীরা চিহ্নিত হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়। পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles