7.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৮, ২০২১

ভ্যাকসিন স্বল্পতা কাটিয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে কানাডা

- Advertisement -

ভ্যাকসিনেশনের যে গতি তাতে করে কানাডা প্রায় ৮৫ শতাংশ মানুষকে পুর্ণাঙ্গভাবে ভ্যাকসিনের আওতায় আনার বেঞ্চমার্ক অর্জন করতে সক্ষম হবে বলে আশাবাদী অন্টারিওর কোভিড-১৯ সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিলের পরিচালক ড. পিটার জুনি । তিনি বলেন, আমরা এখন সঠিক পথেই আছি। তাই আমরা স্টো করতে পারব বলে আশাবাদী। তাছাড়া ভ্যাকসিনের প্রতি অনীহা পোষণকারীদের সংখ্যাও কানাডায় অস্বাভাবিক রকম কম। আশা করি এটা জারি থাকবে।

- Advertisement -

বছরের শুরুতে ভ্যাকসিনের যে স্বল্পতা ছিল তা কাটিয়ে উঠে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে কানাডা। তাই কোন ভ্যাকসিন নেবেন, কানাডিয়ানদের মধ্যে সেই প্রশ্নও উঠছে বেশি করে।

জুনি বলেন, এটা অনেকটা গ্যাসোলিন ব্র্যান্ডের মতো। ফাইজার ও মডার্নার ভ্যাকসিনের ধারণা, উৎপাদন ইত্যাদি দিক বিবেচনা করলে এগুলো খুবই কাছাকাছি। অ্যান্টিবডি তৈরির ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। এটা মনে রাখাটা খুব জরুরি। এই দুটি ভ্যাকসিনের মধ্যে কোনো একটা আরেকটার থেকে ভালো বা খারাপের কোনো বিষয় নেই।

- Advertisement -

জুনি এমন এক সময় মন্তব্যটি করলেন যখন ভ্যাকসিনের বিপুল সরবরাহ পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে কানাডা। জুনেই বিপুল সরবরাহ এসেছে। আগামী মাসেই ৬ কোটি ৮০ লাখ ডোজ আসার পথে রয়েছে। অন্তত এক ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছেন যোগ্য এমন কানাডিয়ানের সংখ্যা ৭০ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। যদিও অন্তত এক ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছেন কানাডার মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ।

- Advertisement -

তবে দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগে এখনও বেশ পিছিয়ে আছে কানাডা। এখন পর্যন্ত মোটামুটি ৯ শতাংশ কানাডিয়ান উভয় ডোজ পেয়েছেন এবং দ্বিতীয় ডোজের ব্যাপারে পরিবর্তীত সুপারিশে প্রথম ডোজ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহীতাদের অনেকের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি করছে।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহীতাদের জন্য নির্দেশিকা গত সপ্তাহে পরিবর্তন করেছে ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন ইমিউনাইজেশন (এনএসিএ)। প্রথম ডোজ হিসেবে যারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নিয়েছেন দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে সম্ভব হলে এমআরএনএ ভ্যাকসিনকে অগ্রাধিকার দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে নির্দেশিকায়।

নির্দেশিকায় এ পরিবর্তন আনা হলো এমন এক সময় যখন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে এবং অন্টারিওতে আধিপত্য বিস্তারকারী ভ্যারিয়েন্ট হওয়ার পথে রয়েছে ভারতে সনাক্ত হওয়া ধরনটি।

জুনি বলছেন, মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনতে দুই ডোজ ফাইজারের ভ্যাকসিন অথবা প্রথম ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও পরের ডোজ ফাইজার বা মডার্না সবচেয়ে ভালো উপায় হতে পারে। তথ্য-উপাত্ত অন্তত তাই বলছে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles