img

করোনায় পর্যটনে ক্ষতি ৫৭০০ কোটি টাকা

নভেল করোনা ভাইরাসের (কভিড-১৯) ছোবলে বিপর্যস্ত পর্যটন খাতে প্রায় পাঁচ হাজার ৭০০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ খাতের সুরক্ষায় আগামী তিন অর্থবছরের বাজেটে সুনির্দিষ্ট বরাদ্দ রাখার পাশাপাশি আরো একগুচ্ছ দাবি জানিয়েছে দেশের পর্যটন খাতের শীর্ষ সংগঠন ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টোয়াব)।

সংগঠনটি বলেছে, করোনা ভাইরাসে এ খাত পঙ্গু হয়ে গেছে। এই খাতকে বাঁচাতে আগামী তিন অর্থবছরের (২০২১, ২০২২ ও ২০২৩)....

img

ব্যাংক থেকে দেদারসে ঋণ নিচেছ সরকার, পরিণতি কী?

বাংলাদেশ সরকারের চলতি অর্থবছরের অর্ধেকও এখনো পার করতে পারেনি। তবে এরই মধ্যে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে পুরো বছরের জন্য সরকারের ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা প্রায় ছুঁই ছুঁই করছে। বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে বলছে, ২০১৯-২০ অর্থবছরে সরকার অভ্যন্তরীণ খাত থেকে মোট ৭৭ হাজার ৩৬৩ কোটি টাকা ঋণ নেবে বলে ঠিক করে।

এর মধ্যে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে ৪৭ হাজার ৩৬৩....

img

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, সঞ্চয়পত্রের বিক্রি কমলে সরকারের ঋণের বোঝা কমবে

সঞ্চয়পত্রের উপর চাপ কমলে ঋণের অতিরিক্ত বোঝা থেকে বাঁচবে সরকার, এমনটা বলছেন অর্থনীতিবিদরা। বাংলাদেশ বাংকের তথ্য বলছে, টানা চার মাস ধরে সঞ্চয়পত্র কেনার হার কমছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নভেম্বরে প্রকাশিত তথ্য মতে, গত বছর এই সময়ের তুলনায় সঞ্চয়পত্র কেনার হার ৮১.৩৭% কমেছে। টাকার অংকে যা ৩৫০০ কোটি টাকার বেশি। অর্থনীতিবিদরা অবশ্য এই পরিবর্তনকে ইতিবাচকভাবেই দেখছেন। তারা বলছেন, সঞ্চয়পত্র নির্দিষ্ট এবং নিম্ন....

img

আয়কর মেলায় রাজস্ব আদায় ২৬১৩ কোটি টাকা

সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার ২ হাজার ৬১৩ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে। বুধবার রাতে এ তথ্য জানিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। মেলায় রিটার্ন দাখিল ও আয়কর বাবদ মোট ২ হাজার ৬১৩ কোটি ৪৬ লাখ ৮৫ হাজার ৬৬৮ টাকার রাজস্ব আহরণ হয়েছে। তবে এ বছর মেলায় কর আদায়ের প্রত্যাশা ছিল ৩ হাজার কোটি টাকা। রাজস্ব আদায়ের পাশাপাশি এই সময়ে মেলায় এসে সেবা....

img

অক্টোবরে রেমিট্যান্স এসেছে ১৬৪ কোটি ডলার

গেল অক্টোবর মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে প্রায় ১৬৪ কোটি ডলার। যা এ যাবৎকালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। গত অর্থবছরের অক্টোবরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের অক্টোবর মাসে রেমিট্যান্স বেড়েছে প্রায় ৩২ শতাংশ। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে সাড়ে ১১ শতাংশের মতো রেমিট্যান্সের প্রবৃদ্ধি হয়েছে। সোমবার (৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন পর্যালোচনায় এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নগদ প্রণোদনা ও ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়নে....

img

গত অর্থবছরে বৈদেশিক বিনিয়োগ বেড়েছে ৫০.৭৩ শতাংশ

গত অর্থবছরে দেশে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ (এফডিআই) বেড়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এফডিআই বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ দশমিক ৮৮৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা আগের অর্থবছরের চেয়ে ৫০ দশমিক ৭৩ শতাংশ বেশি। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তাঁর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রীসভার সাপ্তাহিক বৈঠকে মন্ত্রণালয় ও বিভাগীয় কার্যক্রমের ওপর ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বার্ষিক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশিত হয়। বেপজা’য় ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এফডিআই আসে ৩৩৩ দশমিক ৩২....

img

সহজ ব্যবসা সূচক: উন্নতিতে সেরা ২০-এ বাংলাদেশ

সহজ ব্যবসা সূচক বা ‘ইজ অব ডুয়িং বিজনেস’-এ বেশি উন্নতি করবে এমন ২০টি দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে বিশ্ব ব্যাংক। এ তালিকায় স্থান হয়েছে বাংলাদেশের।

কোনো দেশে ব্যবসা-বাণিজ্যের নিয়মকানুন ও তার বাস্তবায়ন কতটুকু সহজ বা কঠিন তার ওপর বিশ্ব ব্যাংক এ তালিকা তৈরি করে।

আগামী ২৪ অক্টোবর প্রকাশ করা হবে সেরা ব্যবসাবান্ধব দেশের মূল তালিকা। এর আগেই এ তালিকায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে যাওয়া....

img

৫ লাখ টাকা পর্যন্ত সঞ্চয়পত্রের উৎসে কর ৫ শতাংশ

সঞ্চয়পত্রে উৎসে কর নির্ধারণে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। নতুন প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করলে ৫ শতাংশ হারে উৎসে কর দিতে হবে। আর বিনিয়োগের পরিমাণ পাঁচ লাখ টাকার বেশি হলে ১০ শতাংশ হারে উৎসে কর দিতে হবে।

এর আগে, চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে সব ধরনের সঞ্চয়পত্রের উৎসে কর ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করা....

img

রেমিট্যান্স: গত পাঁচ বছরে দেশে এসেছে ৭ হাজার ৪৪১ কোটি ৫৯ লাখ মার্কিন ডলার

বাংলাদেশে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহিত করা ও হুন্ডি প্রতিরোধে কড়াকড়ি অরোপের কারণে গত দুই বছরে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসেব মতে গত পাঁচ বছরে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ৭ হাজার ৪৪১ কোটি ৫৯ লাখ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ৬ লাখ ৫৪ হাজার ৮৬০ কোটি টাকা (১ ডলার ৮৮ টাক ধরে)।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক....

img

ধনীদের কাছে সঞ্চয়পত্র বিক্রি বন্ধ করতে হবে

১৮ বছরের বেশি বয়সি বাংলাদেশি নাগরিকেরা সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন৷ তবে সঞ্চয়পত্র চালুর উদ্দেশ্যগুলোর মধ্যে নারী, অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী, বয়স্ক ব্যক্তি ও প্রতিবন্ধীদের আর্থিক ও সামাজিক নিরাপত্তা দেয়ার কথা বলা হয়েছে৷ জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে এই উদ্দেশ্যের কথা বলা হয়েছে৷ কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, সঞ্চয়পত্রের ক্রেতাদের একটি বড় অংশ হচ্ছেন ধনী ব্যক্তিরা৷ এমনকি বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও সঞ্চয়পত্র কিনছে৷

গতবছর জুলাই মাসে বাংলা....

img

সঞ্চয়পত্রে উৎসে কর: উদ্বেগে বাংলাদেশের অনেক ক্ষুদ্র আয়ের মানুষ

ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা শাহিদা পারভিন স্বামীর পেনশন হিসেবে পাওয়া পুরো টাকা দিয়ে সঞ্চয়পত্র কিনে রেখেছেন, যা দিয়ে তাদের সংসারের খরচ চলে। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে আগে থেকেই সাংসারিক বাজেটে টানাটানি শুরু হয়েছিল। আর এই বাজেটে উৎসে কর বাড়িয়ে দেয়ায়, তারা পড়েছেন আরো সংকটে।

শাহিদা পারভিন বলছেন, ''সঞ্চয়পত্রের টাকা আর কিছু জমিজমা থেকে যে আয় হয়, তা দিয়েই ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা, বাড়িভাড়া, সংসার খরচ....