৫০ হাজার ছাড়াল ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা

১৭ আগস্ট ২০১৯


৫০ হাজার ছাড়াল ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা


 

ডেঙ্গু পরিস্থিতির অবনতি অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছরে রাজধানীসহ সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে এখন পর্যন্ত ৫০ হাজার রোগী ভর্তি হয়েছে। শুক্রবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত সর্বোচ্চ রেকর্ড হয়েছে বাংলাদেশে। এর আগে ডেঙ্গুতে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২০০২ সালে ৬ হাজার ২৩২ জন ও পরে গত বছর ১০ হাজার ১৪৮ জন। অবশ্য এই দুটি রেকর্ডই ছিল ডেঙ্গুর পুরো মৌসুমের। কিন্তু এবার মৌসুমের এখনো এক মাস বাকি থাকতেই আক্রান্তের সংখ্যা সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে। খবর দেশরূপান্তর'র।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার পর্যন্ত ডেঙ্গুতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার। এর মধ্যে এখনো বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৭ হাজার ৭১৬ জন। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরীতে ৪০১৫ জন। ঢাকার বাইরে ৩৭০১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ¦রে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭১৯ জন। সরকারি হিসাবে এবার  ডেঙ্গুজ¦রে মৃতের সংখ্যা সংখ্যা চল্লিশ জন। তবে বেসরকারি হিসাবে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেশি।

সরকারি তথ্যানুযায়ী শুক্রবার সবচেয়ে বেশি ভর্তি হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১১৮ জন। এছাড়া শিশু হাসপাতালে মিটফোর্ড হাসপাতালে ৭২ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ২০ জন, সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ৭৯ জন, বিএসএমএসইউ ২৬ জন,   রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ৯ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৮৭ জন, কুর্মিটোলা হাসপাতালে ৫১ জন ও সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ২২ জন ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ২৬৯ জন ভর্তি হন।

এদিকে ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলা শহর গুলোতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার বাইরে নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৯৬০ জন। ঢাকা শহর ছাড়া ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ২২৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৬৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৯২ জন, খুলনা বিভাগে ১৫১ জন, রাজশাহী বিভাগে ১৩২ জন, রংপুর বিভাগে ৭২ জন, বরিশাল বিভাগে ১০৫ জন ও সিলেট বিভাগে ১৫ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী ভর্তি হন।