শনিবার | ১৯ জুন ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • ইসলামোফোবিয়া বন্ধের পরিকল্পনা প্রণয়নের দাবি
  • গ্রীষ্মের শুরুতে কানাডার অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যাশা
সিআরটিসি প্রধানের পদত্যাগ দাবি

: ৩ জুন ২০২১ | সালাহ উদ্দিন |

টরন্টোতে ইন্টারনেটের দাম বাড়বে...ফাইল ছবি

টেকস্যাভির মতো ছোট ইন্টারনেট প্রোভাইডারদের মূল্য ২০১৯ সালে কমিয়েছিল সিআরটিসি। গত বৃহস্পতিবার সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করে উচ্চ মূল্য নির্ধারণ করা ২০১৬ সালের আদেশ পুনর্বহাল করেছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি। আগের আদেশ বাতিল করায় হতাশা প্রকাশ করেছে আরেকটি স্বাধীন ইন্টারনেট প্রোভাইডার ভিমিডিয়া। সিটিআরটিসির সাবেক চেয়ারম্যান জাঁ পিয়েরে ব্লেইসের সময় কয়েক বছর ধরে পর্যালোচনার পর ওই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল সংস্থাটি।  টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রণ সংস্থার অপ্রত্যাশিত এক সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে টরন্টোতে ইন্টারনেটের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বেশ কয়েকটি স্বাধীন ইন্টারনেট প্রোভাইডার। তা না হলে কিছু সেবা তারা বন্ধ করে দেবে বলেও ঘোষণা দিয়েছে। একটি কোম্পানি আবার নিয়ন্ত্রণ সংস্থা সিআরটিসি প্রধানের পদত্যাগও দাবি করেছে।

কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলেক্সি চেরনোব্রিভেটস বলেছেন, ২০১৭ সালে নিয়োগ পাওয়া বর্তমান চেয়ারম্যান ইয়ান স্কটের পদত্যাগ করা উচিত। কারণ, আগের সিদ্ধান্ত বদলে ফেলার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কর্তৃত্বকে খাটো করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে সিআরটিসির নেতৃত্ব ও এর যোগ্যতা নিয়ে গুরুতর সন্দেহ দেখা দিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে তারা কানাডিয়ানদের প্রভাবশালী কোম্পানির কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। সিআরটিসির চেয়ারম্যান ইয়ান স্কটের পদত্যাগ করা উচিত। এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের রাজনৈতিক বা কর্পোরেট প্রভাব আছে কিনা সেটাও তদন্ত করে দেখা উচিত সংসদের।

২০১৯ সালের সিদ্ধান্ত পুনর্বহাল চেয়ে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও ভাবছে কোম্পানিটি। 

ইয়ান স্কটের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হবে ২০২২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তিনি বা সিআরটিসির পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা না হলেও বৃহস্পতিবার এক সাক্ষাৎকারে ইয়ান স্কট বলেন, ২০১৯ সালের সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করেই তাদের ক্ষমতার মধ্যে থেকে সিআরটিসি এটা করেছে। পর্যালোচনায় আমরা ব্যয়ের মডেল ও ক্যারিয়ারগুলোর রেটের সঙ্গে ব্যয় নীতি প্রযোজ্য কিনা পুক্সক্ষানুপুক্সক্ষভাবে তা পুনপরীক্ষা করে দেখেছি। ফলাফল যা এসেছে তার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এ সিদ্ধান্তের পর অন্যান্য ইন্টারনেট প্রোভাইডার মূল্য ও সম্প্রসারণ পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার ঘোষণা দিয়েছে। টেকস্যাভি সলিউশন্স ইনকর্পোরেশন বলেছে, ইন্টারনেটের পাইকারী হারের বিষয়ে সিআরটিসির এ সিদ্ধান্তের ফলে ওয়ারলেস সেবা চালুর পরিকল্পনা থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে। সেই সঙ্গে কিছু ইন্টারনেট বাজার থেকে তারা সরেও আসতে পারে। 


[email protected] Weekly Bengali Times

-->