মঙ্গলবার | ৩ আগস্ট ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • বিদেশি প্রভাবিত প্রচারণায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে ব্যবহার করা হচ্ছে
  • গ্রিন পার্টির নেতা অনামী পলকে দল থেকে বহিস্কারের কোনো সুযোগ নেই
পরশ পাথরের মত মানুষ আছে

: ৩১ মে ২০২১ | বি জামান মুকুল |

এহসান উল আলম চৌধুরী

পরশ পাথর হয়তো কাল্পনিক কথা কিন্তু পরশ পাথরের মত মানুষ আছে !

আপনার জীবনযুদ্ধ বা সাফল্যের গল্পই অনেকের জন্য অন্য হতে পারে বিশেষ অনুপ্রেরণা !!!

মানুষের জন্য কিছু করতে সব সময় টাকা পয়সা বা ম্যাটেরিয়াল জাতীয় কিছুর দরকার হয় না। 

আমি বলেছি যে পরশপাথরের মত মানুষ আছে, সেটি কিন্তু আন্দাজে বলি নাই। এইরকম একজনের কথা এখন বলবো। বেশ কয়েকবছর আগে ডাক্তারদের নিয়ে বিসিসিবির একটু প্রোগ্রামে আমি অন্যান্য কিছু বক্তার সাথে ডঃ এহসান উল আলম চৌধুরী ভাইকে ডেকেছিলাম। কারণ তার আগে তার কাছ থেকে তার কানাডার স্ট্রাগগলের কথা শুনেছিলাম এবং আমার মনে ধরেছিলো। তারপর তার সম্মন্ধে লিখেছিলাম। তখন থেকেই উনার সাথে যোগাযোগ। আমি ভুলে গেলেও উনি কিন্তু শত ব্যস্ততার মধ্যেও মাঝে মধ্যে নক করেন, এবং ওনার রেটেস্ট আপডেট জানান। 

এহসান ভাইয়ের জন্য আমি ২/৪ টি পজিটিভ কথা আর হয়তো একটি PT চাকরির রেফারেন্স ছাড়া তেমন কিছুই করি নাই। তবে হ্যাঁ, উনার কথা অনেক নতুন আসা ইমিগ্রান্ট বা এখানে রাইরসন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি বছর অন্তত একবার Internationally Educated Social Workerদের জন্য একটি প্রোগ্রামে গেস্ট লেকচারার হিসাবে গেলে আমি বলে থাকি। একটি নূতন জায়গায় এসে সঙ্গে সঙ্গে ভালো কিছু না পেলে একবারে শুরু থেকে যে শুরু করতে হয় এবং সেটি করলে যে সাফল্য অনিবার্য তার একটি উজ্জ্বল উদাহরণ এহসান ভাই। সে জন্যই উনার কথা বলি। 

ঠিক আজকে উনার কথা বলার কারণ এই যে, আজ কথা প্রসঙ্গে একজন অপেক্ষাকৃত নতুন ইম্মিগ্রান্টের কাছ থেকে শুনলাম সে এবং অন্য একজন দেশি ইমিগ্রান্ট ডঃ এহসান  ভাইয়ের এখানকার জীবনের প্রফেশনাল যুদ্ধের গল্পই শুনেই অনুপ্রেরণা পেয়েছেন এবং তারাও উনার মত শুরু করেছেন, এবং আমি খুবই আশাবাদী এরাও এহসান  ভাইয়ের মত ভালো করবেন ইনশাল্লাহ ! 

কথাগুলি শুনে খুবই ভালো লাগলো। আমি যদি মানুষের জন্য ক্ষুদ্র কিছু করে থাকি, তার প্রতিদানে তেমন কিছু চাইনা; চাই শুধু মাত্র এই রকম খবর যাতে অন্য একটি ব্যাক্তি বলে যে, "ভাই আপনি উনার কথা বলেছিলেন, উনার কথায় কাজ হয়েছে বা অনুপ্রেরণা পেয়েছি". এইটুকুই যথেষ্ট ! আমাকে আপনার চা-কফি, মিষ্টি বা বাসায় নিয়ে দাওয়াত খাওয়াতে হবে না। 

এখানকার পরিস্থিতির কারণে এবং আমি যেহেতু একটু আগে এসেছিলাম সে জনই আমি খুব সহজেই ড: এহসান এর মতো মানুষের কাছে যেতে পেরেছিলাম, তা না হলে তার কাছে পৌঁছাতে আমার জন্য সহজ হতো না। তার প্রোফাইলে গেলে এবং তার সাথে কথা বললে বুঝতে পারবেন উনি কেমন মানুষ। উনি হয়তো হোমরা-চোমরা তেমন কেউ না, কিন্তু মানবিক গুনের দিকে থেকে অনন্য। শুরুতে এইজন্যই বলেছি যে বাস্তবে পরশপাথর না থাকলেও পরশপাথরের মত মানুষ আছে। 

উনি সাম্প্রতিক এখানে নার্সিং ডিগ্রী সম্পন্ন করেছেন, সে জন্য উনাকে বিশেষ অভিবাদন। আমি উনার এই জার্নি সমন্ধে ভালো করে জানি তাই আমার কাছে উনার এই সাফল্য অনেক কিছু, এবং আমি নিশ্চিত উনি খুব ভালো করবেন ভবিৎষতে, ইনশাল্লাহ। 

আপনারা কারো জন্য কিছু না করতে পারলেও মনে রাখবেন আপনার জীবন যুদ্ধের গল্প এবং কিছু পজিটিভ কথা হতে পারে অনেকের জন্য অনেক অনুপ্রেরণা, সে জন্য আপনাকে ম্যান্ডেলা বা গান্ধী হতে হবে না। 

অবশেষে ড্: এহসান ভাইকে তার গল্পটি শেয়ার করার অনুমতি দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করছি। 

টরন্টো।


[email protected] Weekly Bengali Times

-->