‘শুটকি রফতানিতে ৬৯ কোটি টাকা আয়’

১৮ জুন ২০১৯


‘শুটকি রফতানিতে ৬৯ কোটি টাকা আয়’

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৩৫ হাজার ৩৫৯ মে মেট্রিকটন শুটকি রপ্তানি করা হয়েছে। যার মূল্য প্রায় ৬৯ কোটি ১৯ লাখ টাকা বা ৮ দশমিক ২৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। মঙ্গলবার (১৮ জুন) জাতীয় সংসদে মনজুর হোসেন (ফরিদপুর-১০) তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৩৮ হাজার ৫৭১ মেট্রিক টন শুটকি উৎপাদিত হয়েছে। এর মধ্যে সামুদ্রিক মাছের শুটকির পরিমাণ ২৯ হাজার ৮২ মেট্রিক টন যা দেশের উৎপাদিত মোট শুটকির প্রায় ৭৫ শতাংশ।

মন্ত্রী আরো বলেন, মৎস মৎসপণ্য পরিদর্শন ও নিয়ন্ত্রণ বিধিমালা, ১৯৯৭ এর বিধি ৫ অনুযায়ী কোনো ব্যক্তি শুটকি বা অন্য কোন উপায়ে প্রক্রিয়াজাত কিউরড মাছের মধ্যে ডাই ক্লোরো ট্রাই ক্লোরে ইথেন বা অন্য কোনো ক্ষতিকর কীটনাশক ব্যবহার করবে না। তবে শর্ত থাকে যে শুটকি বা কিউট মাছ কীটপতঙ্গ পোকামাকড় হতে রক্ষার্থে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কর্তৃক অনুমোদিত এবং নির্দিষ্ট মাত্রায় বায়ো-ডিগ্রেডেবল কীটনাশক ব্যবহার করা যাবে। উক্ত বিধান বাস্তবায়নে সরকার বদ্ধপরিকর।

এ লক্ষ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মৎস্য অধিদপ্তর এর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা বাণিজ্যিকভাবে শুটকি উৎপাদনকারী এলাকাসমূহ নিয়মিত পরিদর্শন করে থাকেন।