মঙ্গলবার | ১১ মে ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • কানাডায় শুরু হয়েছে গণহারে ভ্যাকসিন কার্যক্রম
  • কানাডার বিমানবন্দরে বন্দুকধারীর হামলায় একজন নিহত
টরন্টোতে বাড়ির চাহিদা বেড়েছে, বেড়েছে দাম

: ২১ এপ্রিল ২০২১ | কাজী আলম বাবু |

ফাইল ছবি

চলতি বছর মার্চের প্রথম ১৪ দিনে টরন্টোতে বাড়ি বিক্রি হয়েছে ৬ হাজার ৫০৪টি, গত বছরের একই সময়ের চেয়ে যা ৪১ শতাংশ বেশি। আর মার্চের ১৫ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে ৯ হাজার ১৪৮টি বাড়ি, ২০২০ সালের একই সময়ের তুলনায় যা ১৭৪ শতাংশ বেশি। ২০২০ সালের মার্চের প্রথমার্ধ মোটামুটি স্বাভাবিকই ছিল। কিন্তু ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মহামারি ঘোষণার পর বাড়ি বিক্রি হ্রাস পেতে থাকে। পরবর্তী এক বছরে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী আবাসন ব্যবসায়ীরা বাড়ির জোগান দিতে পারেননি। এর ফলে দাম বেড়ে গেছে।

এ অঞ্চলে বাড়ির গড় দাম ২১ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়ে ১০ লাখ ৯৭ হাজার ৫৬৫ ডলারে পৌঁছেছে। গত বছর যেখানে দাম ছিল গড়ে ৯ লাখ ২ হাজার ৭৮৭ ডলার। অন্যদিকে বিক্রির জন্য বাড়ির তালিকাভূক্তি ৫৭ শতাংশ বেড়ে ১৪ হাজার ৪৩৪ থেকে ২২ হাজার ৭০৯টিতে উন্নীত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ডিটাচড বাড়ির দাম। ২৬ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়ে এ ধরনের গড় দাম দাঁড়িয়েছে ১৪ লাখ ২ হাজার ৮৪৯ ডলারে। অন্যদিকে সেমি ডিটাচড বাড়ির দাম গড়ে ১৭ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে ৮ লাখ ৭০ হাজার ৫৫৩ ডলারে দাঁড়িয়েছে। তবে কন্ডোমিনিয়ামের দাম সে হারে বাড়েনি। মাত্র ২ দতশমিক ৬ শতাংশ বেড়ে কন্ডোমিনিয়ামের গড় দাম দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৫২ ডলারে। 

২০২০ সালের মার্চের তুলনায় বাড়ি বিক্রয়ের এ বৃদ্ধিকে নাটকীয় বলতে হবে। কারণ, ওই সময়েই মহামারির অর্থনৈতিক প্রভাব শুনরু হয়েছিল এবং ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েই আবাসন বাজার সম্পর্কে সতর্ক ছিলেন। এরপর সেই শঙ্কা আস্তে আস্তে কাটতে শুরু করে এবং বাড়ি বিক্রি বাড়তে থাকে। এ বছরের শুরু থেকে বাড়ি বিক্রি এতোটাই বাড়তে থাকে যে, তা আবাসন ব্যবসায়ীদের প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে গেছে। 


[email protected] Weekly Bengali Times

-->