শুক্রবার | ২৩ এপ্রিল ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • নতুন ভ্যারিয়েন্ট কানাডাকে আবৃত করে ফেলতে যাচ্ছে : ট্রুডো
  • ভ্যাকসিনেশনের গতি বাড়াতে প্রয়োজন নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ : ডগ ফোর্ড
বেশ কিছু আঞ্চলিক ফ্লাইট পুনর্বহাল করতে যাচ্ছে ওয়েস্টজেট...ছবি/ওয়েস্টজেট

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে গত নভেম্বরে পাঁচটি অঞ্চলে ফ্লাইট স্থগিত করেছিল ওয়েস্টজেট। কানাডার ছোট বাজার বিশেষ করে আটলান্টিক প্রদেশের বিভিন্ন শহর থেকে ফ্লাইট প্রত্যাহার করার কারণে দেশের বাকি অঞ্চলের সঙ্গে এ অঞ্চলের যোগাযোগ নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়। এ অঞ্চলের ছোট বিমানবন্দরগুলোর ব্যবসার ওপরও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। কারণ, এসব বিমানবন্দরের রাজস্ব আসে এয়ারলাইন্স ও যাত্রীদের কাছ থেকে। অর্থনীতিতে এর নেতিবাচক প্রভাব ফেরাতে কানাডার পশ্চিমাঞ্চলে স্থগিত হওয়া বেশ কিছু আঞ্চলিক ফ্লাইট পুনর্বহাল করতে যাচ্ছে ওয়েস্টজেট। 

শার্লটটাউন, ফ্রেডেরিক্টন, মঙ্কটন, সিডনি, নোভা স্কটিয়া ও কুইবেক সিটিতে তারা আবার ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ওয়েস্টজেট। আগামী ২৪ জুন এসব গন্তব্যে ফ্লাইট পুনরায় করবে এয়ারলাইন্সটি। ওয়েস্টজেটের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এড সিমস বলেন, মহামারির কারণে যেসব কমিউনিটিকে আমাদের ছেড়ে আসতে হয়েছিল আবার তাদের কাছে ফিরে যেতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। স্বেচ্ছায় সামনের মাসগুলোতে এসব অঞ্চলে আমরা ফ্লাইট পুনর্বহাল করব। 

নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, অক্টোবরে স্থগিত করা সেন্ট জন’স ও টরন্টোর মধ্যে ফ্লাইট ২৪ জুন পুনরায় চালু হবে। সেন্ট জন’স ও হ্যালিফ্যাক্সের মধ্যকার ফ্লাইট পূর্বনির্ধারিত ২৪ জুনের পরিবর্তে ৬ মে শুরু করবে ওয়েস্টজেট।  এয়ার কানাডাও মে মাসের গোড়ার দিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ক্যারিবিয়ানের শহরগুলোর মতো কিছু গন্তব্যে ফ্লাইট পুনবর্হালের আশা করছে। ফেডারেল সরকারের অনুরোধে ক্যারিবিয়ানের মতো গন্তব্যগুলোতে জানুয়ারি থেকে ফ্লাইট বন্ধ রেখেছে কানাডার উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থাগুলো। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এটা বলবৎ থাকবে। 

রৌদ্রকরজ্জ্বোল গন্তব্যগুলোয় ফ্লাইট শুরু হলে আন্তর্জাতিক যাত্রীদের জন্য বিমানবন্দরগুলোতে কোয়ারেন্টিন বিধিনিষেধ শিথিলের পরীক্ষামূলক কর্মসূচি শুরু করতে চায় এয়ার কানাডা। যদিও ফেডারেল সরকার বিধিনিষেধ শিথিলের কোনো ইঙ্গিত এখন পর্যন্ত দেয়নি। আন্তর্জাতিক যাত্রীরা আকাশপথে কানাডায় প্রবেশ করার পর বর্তমানে তিন দিনের হোটেল কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক।