রবিবার | ৭ মার্চ ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • ৮ মার্চ টরন্টোর ওপর থেকে জনস্বাস্থ-সংক্রান্ত কিছু বিধিনিষেধ প্রত্যাহার হতে পারে
  • নকল এড়াতে ভ্যাকসিন সরবরাহ ব্যবস্থা সতর্কতার সঙ্গে দেখভাল করছে কানাডা
ছবি গ্লোবাল নিউজের সৌজন্যে

অন্টারিওর অনেক অঞ্চলে লকডাউন শিথিল করা হলেও টরন্টোতে কঠোর বিধিনিষেধ আরও কিছুদিন বলবৎ থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ অবস্থায় টরন্টোর ব্যবসায়ীদের অনেকেই বলছেন, প্রাদেশিক সরকারের কাছ থেকে পরিস্কার সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত ব্যবসা খোলার মতো ঝুঁকি নিতে বেগ পেতে হচ্ছে তাদের। কবে নাগাদ অন্টারিওর অর্থনৈতিক কর্মকান্ড খুলে দেওয়া হবে সে অনিশ্চয়তা এখনও দূর হয়নি। ফলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ঝাপি আরও অন্তত দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখতে হচ্ছে টরন্টোর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের। এ অবস্থায় টরন্টোর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা কবে নাগাদ তাদের ব্যববসায়িক কার্যক্রম পুরোদমে চালু করতে পারবেন তা নিয়ে সংশয় থাকছেই।

অন্টারিওতে ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে চালু হওয়া লকডাউনের মেয়াদ ৯ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার কথা। এর মেয়াদ আর না বাড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বাড়তে পারে স্টে-অ্যাট-হোম আদেশের মেয়াদ। টরন্টো, পিল ও ইয়র্ক রিজিয়নের জন্য আদেশটি তুলতে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে। তবে সংক্রমণ পরিস্থিতি খারাপের দিকে মোড় নিলে স্টে-অ্যাট-হোম আদেশের মেয়াদও আরও বাড়বে। 

ডাউনটাউন টরন্টোতে হেনড্রিঙ্ক রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড বার পরিচালনা করছেন জর্জ বজিকিস। তিনি বলেন, স্টে-অ্যাট-হোম আদেশের মেয়াদ বাড়ার সম্ভাবনা থাকায় ২২ ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নিতে পারছি না। কারণ, ২৯০ আসনের রেস্টুরেন্ট খোলার অর্থই হলো প্রতিবার ২০ হাজার ডলার খরচ হওয়া। এর মধ্যে প্রচনশীল খাদ্যপণ্য থাকে ১০ হাজার ডলারের এবং রেস্টুরেন্ট খোলার পর হঠাৎ বন্ধ হয়ে গেলে তা ফেলে দেওয়া ছাড়া গত্যন্তর থাকে না। ব্যবসা থেকে মুনাফা করা তো দূরের কথা, টিকে থাকার মতো উপার্জনই এখন প্রধান বিবেচ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে।