বুধবার | ২০ জানুয়ারী ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • কানাডা-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ল
  • কানাডায় করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে
ফোর্ড এফ-১৫০ মডেলের গাড়িই কানাডিয়ানদের প্রথম পছন্দ

: ২৯ ডিসেম্বর ২০২০ | দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক |

ফাইল ছবি

চলতি বছর কানাডিয়ানদের মধ্যে বিলাসবহুল গাড়ির প্রতি অতি আগ্রহ বেড়েছে। এই মহামারিতেও সমগ্র কানাডাজুড়েই বিলাসবহুল গাড়ির প্রতি আগ্রহ দেখা গেছে। অটোট্রেডারের দাবি, চলতি বছর ইলেকট্রিক ও হাইব্রিড গাড়ির অনুসন্ধান ১৯ শতাংশ বেড়েছে। বিশেষ করে অন্টারিওতে এ ধরনের যানবাহনের অনুসন্ধান বেড়েছ ১২ শতাংশ। তবে এ ধরনের যানবাহনের খোঁজ সবচেয়ে বেশি করেছেন আটলান্টিক কানাডার বাসিন্দারা। তাদের মধ্যে ইলেকট্রিক ও হাইব্রিড গাড়ির অনুসন্ধান বেড়েছে ৫৮ শতাংশ। 

নতুন ও পুরাতন গাড়ি বেচাকেনার বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফরম অটোট্রেডারের এডিটর-ইন-চিফ জোডি লাই বলছিলেন, সমগ্র কানাডাজুড়েই বিলাসবহুল গাড়ির প্রতি আগ্রহ দেখা গেছে। বিষয়টি বেশ মজার। কারণ, আমরা এখনও মহামারির মাঝ বরাবর আছি। অটোট্রেডারে এ বছর কানাডিয়ানরা সবচেয়ে বেশি খুঁজেছেন ফোর্ড এফ-১৫০ মডেলের গাড়িটি। এরপর সবচেয়ে বেশি খোঁজা হয়েছে ফোর্ড মুস্ট্যাং, বিএমডব্লিউ থ্রি সিরিজ, মার্সিডিজ বেঞ্জ সি-ক্লাস ও পোরশে ৯১১ মডেলের গাড়িগুলো। সবচেয়ে বেশি খোঁজ করা দশটি মডেলের পরের পাঁচটি হলো, হোন্ডা সিভিক, বিএমডব্লিউ এম, শেভ্রোলেট করভেট, মার্সিডিজ বেঞ্জ ই-ক্লাস ও টয়োটা র‌্যাভ ফোর।

টরন্টোবাসীরা অটোট্রেডারে এ বছর সবচেয়ে বেশি যেসব গাড়ির সন্ধান করেছেন, তার অর্ধেকই বিলাসবহুল। ২০১৯ সালে যেখানে এ তালিকায় বিলাসবহুল গাড়ি ছিল মাত্র একটি। 

জাতীয়ভাবে এবং বিসি, আলবার্টা, সাস্কেচুয়ান, ম্যানিটোবা ও মেরিটাইমসে এ বছর সবচেয়ে বেশি খোঁজা হয়েছে ফোর্ড-১৫০ মডেলের বিলাসবহুল গাড়িটি। তবে কুইবেকে সবচেয়ে বেশি অনুসন্ধান করা পাঁচটি বিলাসবহুল গাড়ির তালিকার প্রথমেই আছে হোন্ডা সিভিক। যদিও জাতীয় তালিকার শীর্ষ পাঁচে নেই গাড়িটি। 

অন্যান্য বছরের তুলনায় মানুষ কেন এ বছর গাড়ির অনুসন্ধান বেশি করছে? এ প্রশ্নের উত্তরে লাই বলেন, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে কানাডিয়ানরা আর গণপরিবহনে চড়তে সাচ্ছন্দ বোধ করছেন না। এ কারণেই তারা ব্যক্তিগত গাড়ি কিনতে চাইছেন।

গত অক্টোবরে করা অটোট্রেডারের সর্বশেষ সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৬৫ শতাংশ কানাডিয়ান মহামারির পর রাইড-শেয়ারিং ব্যবহার করবেন না বলে জানিয়েছেন। নিয়মিত গণপরিবহনে যাতায়াতকারী ৫৪ শতাংশ কানাডিয়ানও আর বাস, স্ট্রিট কার ও সাবওয়েতে ফিরতে চান না। এছাড়া ২৮ শতাংশ উত্তরদাতা মহামারির মধ্যেই ব্যক্তিগত গাড়ি ক্রয়ের পরিকল্পনা করছেন।