বুধবার | ২০ জানুয়ারী ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • কানাডা-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ল
  • কানাডায় করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে
ক্ষতিগ্রস্ত মিউনিসিপালিটিগুলো ঘাটতির কারণে নাগরিক সেবা কমিয়ে আনতে পারে

: ২২ ডিসেম্বর ২০২০ | দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক |

ফাইল ছবি



ঘাটতির কারণে কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের কাছ থেকে জরুরিভিত্তিতে বাড়তি তহবিল না পেলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মিউনিসিপালিটিগুলো করের হার বাড়াতে বাধ্য হবে। অথবা ২০২১ সালে নাগরিক সেবা কমিয়ে আনতে পারে তারা। ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্টেবিলিটি অফিস অব অন্টারিও (এফএও) তাদের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে অন্টারিওর মিউনিসিপালিটিগুলো সার্বিকভাবে ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার তহবিল ঘাটতিতে পড়তে পারে। 

কোভিড-১৯ মহামারি অন্টারিওর ৪৪৪টি মিউনিসিপালিটির ওপর যে আর্থিক প্রভাব ফেলেছে সে সম্পর্কে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য হিসাব দিয়েছে এফএও। সংস্থাটির হিসাব বলছে, মহামারির কারণে ২০২০ সালে মিউনিসিপালিটিগুলোর ক্ষতির পরিমান ৪ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার। তবে ২০২১ সালে তা ২ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার বাড়বে। বিপুল পরিমান রাজস্ব হারানোর পরও ব্যয় বেড়ে যাওয়াই এর কারণ।

জরুরি তহবিল ও খরচ কমানোর মাধ্যমে মিউনিসিপালিটিগুলো যে পরিমান অর্থ ২০২০ সালে সাশ্রয় করেছে, রাজস্ব হারিয়েছে তার চেয়েও বেশি। এফএওর হিসাব অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের যৌথ কর্মসূচি সেইফ রিস্টার্ট এগ্রিমেন্টের আওতায় এ বছর ৩ বিলিয়ন ডলারের জরুরি সহায়তা পেয়েছে মিউনিসিপালিটিগুলো। এছাড়া সাময়িকভাবে কর্মী ছাটাই, পাবলিক ট্রানজিট সেবা হ্রাস ও কিছু সেবা বন্ধ রাখার মাধ্যমে ১ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার সাশ্রয়ও করেছে তারা।

আগামী বছর আর্থিক পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হলেও ভবিষ্যতের লোকসান মিউনিসিপালিটিগুলো কীভাবে সামাল দেবে সে অনিশ্চয়তা থাকছেই। কারণ ২০২১ সালের জন্য যে পরিমান জরুরি তহবিলের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, তুলনামূলকভাবে তা বেশ কম। ট্রানজিট-সম্পর্কিত ক্ষতি সামলাতে ৩০০ মিলিয়ন ও অন্যান্য ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ৭০০ ডলার তহবিলের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে, মিউসিপালিটিগুলোর সার্বিক ঘাটতির তুলনায় যা অনেক কম।