মসজিদে হামলার হুমকি : তদন্তে টরন্টো পুলিশ

১৭ অক্টোবর ২০২০


মসজিদে হামলার হুমকি : তদন্তে টরন্টো পুলিশ

গত শনিবার টরন্টোর একটি মসজিদে নৃশংস পন্থায় প্রাণহানির হুমকি দেয়ায় সোমবার থেকে টরন্টো পুলিশ এ বিষয়ে পুরোপুরি তদন্তে নেমেছে। ন্যাশনাল কাউন্সিল অব কানাডিয়ান মুসলিমস, সংক্ষেপে ‘এনসিসিএম’ জানিয়েছে তাদের কাছে প্রেরিত একটি ইমেইল বার্তায় ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের দুটি মসজিদে ৫১ জনকে হত্যার ঘটনার প্রতি ইঙ্গিত করে বলা হয়েছে ‘ডু এ ক্রাইস্টচার্চ’, অর্থাৎ ‘ক্রাইস্টচার্চের মতো’ ঘটনা ঘটনো হবে। তাতে সুনির্দিষ্টভাবে বলা হয়েছে, ‘উই হ্যাভ এ রাইট টু ডিভেন্ড আওয়াসেল্ভস ফ্রম দ্য টেরোরিস্ট’ বা সন্ত্রাসীদের কবল থেকে আমাদের রক্ষার অধিকার রয়েছে। আরও বলা হয়েছে, ‘দ্য পুলিশ উইল টেক আওয়ার সাইড। ইসলাম উইল নট ডিফিট আস্। উই হ্যাভ দ্য গানস টু ডু এ ক্রাইস্টচার্চ অল ওভার অ্যাগেইন ইন আওয়ার অফিস। উই হ্যাভ সোলজার্স হু হ্যাভ এক্সপ্রেরিন্স অ্যাজ ¯œাইপার্স।’ অর্থাৎ পুলিশ আমাদের পক্ষ নেবে। ইসলাম আমাদের পরাজিত করতে পারবে না। ক্রাইস্টচার্চ সংঘটনের মতো আমাদের অফিসে অস্ত্র মজুদ আছে। দূরনিশানাধারী অভিজ্ঞতার সৈন্য রয়েছে। 

অবশ্য পরবর্তী হামলা বা নজর এড়ানোর জন্য টরন্টো ডাউনটাউনের ওই মসজিদের ঠিকানাটি এনসিসিএম জনসমক্ষে প্রকাশ করেনি। তবে এক টুইট বার্তায় বিস্তারিত তথ্য সংবলিত প্রেস রিলিজ আকারে সর্বসাধারণের জ্ঞাতার্থে সে কথা জানিয়েছে। এতে এনসিসিএম’র প্রধান নির্বাহী মোস্তফা ফারুকের প্রতিক্রিয়াটি উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে- ‘এনাফ ইজ এনাফ’ বা যথেষ্ট হয়েছে। আরও বলেছে, এ বিষয়ে টরন্টো পুলিশ তদন্তে নামায় আমরা তাদের প্রশংসার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারকে সেজন্য সহিংসতার উদ্যোক্তা ‘জেনোফোবিক’ গ্রুপকে পুরোপুরি নির্মূলের আহবান জানাচ্ছি। আমরা ২০১৭ সালে ক্যুইবেকের মসজিদে হামলার ঘটনা দেখেছি। সেপ্টেম্বর মাসে ইসলামিক মসজিদ (আইএমও)-তে হত্যা দেখেছি। আজ টরন্টোর মুসলিম কমিউনিটি এ ধরণের হুমকি পেয়েছি। পদক্ষেপ গ্রহণে আর কী বাকি রয়েছে?