যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে শপিংমলে গুলিতে নিহত ২০

৪ আগস্ট ২০১৯


যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে শপিংমলে গুলিতে নিহত ২০

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২৪ জন। খবর বিবিসি’র। স্থানীয় সময় শনিবার সকালে এল পাসো শহরে ওয়ালমার্টের একটি দোকানে এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। স্থানীয় কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। টেক্সাসের মেয়র গ্রেগ অ্যাবট একে দেশটির ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ দিন বলে বর্ণনা করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র মেক্সিকো সীমান্তের কয়েক মাইল দূরত্বে সিয়েলো ভিস্টা মলের কাছে ওয়ালমার্ট স্টোরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্যাট্রিক ক্রুসিয়াস (২১) এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে, সে একাই হামলা করেছে। সে ডালাস এলাকার একজন বাসিন্দা।

সিসিটিভি ফুটেজে একজন ব্যক্তিকে বন্দুকধারী হিসাবে দেখা গেছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম বলছে, গাঢ় টি-শার্ট পড়া স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র হাতে ব্যক্তি হামলা করেছে।

পুলিশ বলছে, হামলার সময় ওয়ালমার্টের ওই দোকানটিতে ক্রেতাদের প্রচণ্ড ভিড় ছিল। পুলিশের মুখপাত্র সার্জেন্ট রবার্ট গোমেজ বলেছেন, একমাত্র সন্দেহজনক ব্যক্তি হচ্ছেন বছর কুড়ি বয়সের একজন শ্বেতাঙ্গ ব্যক্তি। তবে তাকে আটক করার সময় পুলিশের কোন কর্মকর্তাকে গুলি করতে হয়নি। পুরো এলাকাকে নিরাপদ করে তোলা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি বলছেন।

হামলার সময় সেখানে উপস্থিত একজন ব্যক্তি গুলিবর্ষণের বর্ণনা দিয়েছেন। সিবিএস নিউজকে তিনি বলেছেন, ‘সেখানে কর্মীরা ছিল, তারা ভেতরে এসে বলছিল যে, তারা কয়েকটি গুলির শব্দ শুনেছে। তখন মানুষজন সবাই কাভার নেয়ার জন্য দোকানটির ভেতর ছুটে আসছিল। আমি শান্ত থাকার চেষ্টা করছিলাম, কিন্তু ভেতরে ভেতরে আমি ভেঙ্গে পড়ছিলাম।’

এল পাসোর মেয়র গ্রেগ অ্যাবোট বলেছেন, ‘এ রকম দুঃখজনক ঘটনা এখানে কখনো ঘটেনি, কখনো ভাবিনি এল পাসোতে এমনটা কখনো ঘটবে। এটা আমাদের দুঃখ দিয়েছে।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ওই এলাকা থেকে যেসব খবর আসছে, তা খুব খারাপ, অনেকে মারা গেছেন।