স্বামীর কাছে 'হাতি' নয় ‘মুরগি’ চাইলেন পিয়া

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০


স্বামীর কাছে 'হাতি' নয় ‘মুরগি’ চাইলেন পিয়া

২০০৭ সালে মিস বাংলাদেশ হিসেবে আলো ঝলমলে জগতে আবির্ভুত হন পিয়া জান্নাতুল। এরপর মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। ২০১২ সালে রেদোয়ান রনির ‘চোরাবালি’ সিনেমার মধ্য দিয়ে চিত্রজগতে তার আগমন। এরপর আরও কিছু সিনেমা, নাটক ও মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন তিনি। পাশাপাশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করায় তার তারকাখ্যাতি আরও বাড়িয়ে দেয়।

প্রথম বাংলাদেশি নারী হিসেবে ‘ভোগ ইন্ডিয়া’ ম্যাগাজিনের কভারচিত্রে জায়গা করে নেন পিয়া জান্নাতুল। মডেলিং ক্যারিয়ারে শক্ত অবস্থানের পাশাপাশি জান্নাতুল পিয়া ২০১৭ সালের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) হোস্ট ছিলেন তিনি। 

২০১৮ সালেও বিপিএলের হোস্ট হিসেবে টিভি পর্দায় তাকেই দেখেছেন অগণিত দর্শক। এই কাজের সাফল্যের ধারায় তিনিই প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে আইসিসি ২০১৯ ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপে উপস্থাপনার আমন্ত্রণ পান।  করোনার কারণে আগের মতো পুরোপুরি কাজ শুরু না হলেও সীমিত আকারে কাজ করছেন পিয়া। করোনায় দীর্ঘদিন ঘরবন্দি থাকার পর ‘পাপ’ শিরোনামের একটি ওয়েব সিরিজ দিয়ে অভিনয়ে ফিরেন পিয়া। 

নাটক, ওয়েব সিরিজের বাইরেও দুটি সিনেমার কাজ হাতে রয়েছে তার। জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘মাসুদ রানা’ ও নির্মাতা রায়হান রাফীর স্বপ্নবাজী।  এছাড়াও নতুন আরো কিছু ছবির কাজের কথা চলছে বলেও তিনি জানান

অভিনয়ের পাশাপাশি সামাজিক কাজেও অনেকটা এগিয়ে পিয়া। দেশে করোনা সংক্রমণের পর থেকে নিজ সামর্থ্যের মধ্যে অসচ্ছল মানুষ ও প্রবাসীদের পাশে তিনি। সবমিলিয়ে এক হাজারের বেশি মানুষকে সাহায্য করেছেন  তিনি। এর মধ্যে ৩০ ভাগ ছিলেন প্রবাসীদের পরিবার।

সম্প্রতি স্ত্রীর স্বপ্ন পুরণ করতে জমি বেচে ১৭ লাখ টাকা দিয়ে মৌলভীবাজার থেকে হাতি কিনে বাড়ি নিয়ে আসেন লালমনিরহাট সদর উপজেলার কৃষক দুলাল চন্দ্র রায়। সংবাদটি গণমাধ্যমে প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে পিয়া জান্নাতুল তার স্বামীর কাছে হাতি নয়, দেশি মুরগির আবদার করলে তার স্ট্যাটাসটি ভাইরাল হয়। এ নিয়ে কিছু গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশ হয়। 

এ বিষয়ে পিয়া জান্নাতুল সময় সংবাদকে বলেন, ‘ওটা আসলে মাজা করেই স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। পরে দেখি সেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে। মূলত স্বামী-স্ত্রীর প্রতি একে অপরের যে শ্রদ্ধাবোধ তা থেকেই স্ত্রীর জন্য জমি বিক্রি করে হাতি কিনে বাড়িতে নিয়ে এসেছেন ওই ভদ্রলোক। সেই শ্রদ্ধাবোধ থেকেই আমি মজা করেই মুরগি কিনে চেয়েছি!’