মন্ত্রী মহোদয় হয়তো জানতেন না, অন্য কেউ জানতেন: স্বাস্থ্য মহাপরিচালক

১৫ জুলাই ২০২০


মন্ত্রী মহোদয় হয়তো জানতেন না, অন্য কেউ জানতেন: স্বাস্থ্য মহাপরিচালক


বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদ। আজ (বুধবার) দুপুরে স্বাস্থ্য সচিবের কাছে ব্যাখ্যা দিয়ে আগের অবস্থানেই অনড় বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি। মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাবে মহাপরিচালক কোনো ভুল বলেননি বলেও মন্তব্য করেন।

রিজেন্ট হাসপাতালের সাথে করা চুক্তি নিয়ে বিভিন্ন মহলে নিন্দাও সমালোচনার মুখে গত ১১ জুন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশেই হয়েছে চুক্তি। এ নিয়ে পরের দিনই স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় থেকে ব্যাখ্যা চাওয়া হয় অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে।

মন্ত্রণালয়কে দেওয়া ব্যাখ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক তাদের আগের অবস্থানের কথাই জানান। এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, “এসব প্রশ্ন করার দরকার নাই, আমি উত্তর দিয়েছি। শোনেন, একটা একটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। মন্ত্রণালয় আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ। আমাদের কাছে ব্যাখ্যা চাইতেই পারে। আমাদের ব্যাখ্যা আমরা সচিব মহোদয়ের হাতে দিয়েছি। মন্ত্রণালয় এখন এটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সিদ্ধান্ত দেবেন। আমরা সেই পর্যন্ত অপেক্ষা করাই ভালো।“

করোনার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে সই করেন রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। তাঁর পাশে বসা স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

আপনি আগের অবস্থানে আছেন কিনা আবারো জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেটা মন্ত্রণালয় বিবেচনা করবে। আমরাও ভুল বলি নাই। আর মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কেউ কিছু তো বলে নাই। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তো মন্ত্রী মহোদয় ছাড়াও হতে পারে, তাই কিনা? মন্ত্রী মহোদয় হয়তো জানতেন না, অন্য কেউ জানতেন।

সমন্বয়হীনতার বিষয়ে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, মন্ত্রী মহোদয় নিজেই বলেছেন, কোনো সমন্বয়হীনতা নাই।

পরে স্বাস্থ্য সচিব মো. আব্দুল মান্নান জানান, মন্ত্রণালয়ের মৌখিক নির্দেশের কথা জানিয়েছেন মহাপরিচালক। তিনি বলেছেন যে, এগুলো মৌখিকভাবে পূর্ববর্তী সচিব মহোদয় বলেছেন। আমি বলেছি যে, আপনার ডকুমেন্টস কোথায়? জবাবটা সন্তোষজনক কিনা, এটা পর্যালোচনা করার সময়টা আমাদের দিতে হবে।