পাঙাশটির ওজন ২৮ কেজি, কাতলটি ২৫

৬ জুলাই ২০২০


পাঙাশটির ওজন ২৮ কেজি, কাতলটি ২৫

বিশাল আকৃতির পাঙাশ ও কাতলা মাছ। দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকা, গোয়ালন্দ, রাজবাড়ী, ৬ জুলাই। ছবি: এম রাশেদুল হকরাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পদ্মা নদীতে বিশাল আকৃতির একটি পাঙাশ ও একটি কাতলা মাছ ধরা পড়েছে। রোববার দিবাগত মধ্যরাতে জেলেদের জালে প্রায় ২৮ কেজি ওজনের ১টি পাঙাশ ও ২৫ কেজি ৩০০ গ্রাম ওজনের ১টি কাতলা মাছ ধরা পড়ে।

আজ সোমবার সকালে মাছ দুটি দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আনা হলে মাছ ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা পাঙাশ মাছটি ১ হাজার ৩৫০ টাকা কেজি দরে এবং অপর মাছ ব্যবসায়ী মো. শাহজাহান শেখ কাতলা মাছটি ১ হাজার ৬০০ টাকা কেজি দরে কিনে নেন। এরপর মাছ দুটি দৌলতদিয়া ৫ নম্বর ফেরিঘাটের পল্টুনের সঙ্গে বেঁধে রাখা হলে উৎসুক জনতা তা দেখতে ভিড় জমান। পরে ঢাকার এক শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীর কাছে পাঙাশ মাছটি এবং গাজীপুরের এক ব্যবসায়ীর কাছে কাতলা মাছটি বিক্রি করা হয়।

মাছ ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা বলেন, প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালে তিনি দৌলতদিয়া ঘাটের মাছ বাজারে মাছ কিনতে গেলে পাবনার জেলে গুরু হালদার বিশাল আকৃতির পাঙাশ মাছটি বিক্রি করতে আসেন। পরে স্থানীয় এক আড়তে নিলামে তুললে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে তিনি পাঙাশ মাছটি ১ হাজার ৩৫০ টাকা কেজি দরে মোট ৩৭ হাজার ৮০০ টাকায় কিনে নেন।

মাছ ব্যবসায়ী মো. শাহজাহান শেখ বলেন, সকালে দৌলতদিয়া ঘাটের জেলে রহমান হালদারের কাছ থেকে ২৫ কেজি ৩০০ গ্রাম ওজনের কাতলা মাছটি আমি সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ১ হাজার ৬০০ টাকা কেজি দরে প্রায় ৪০ হাজার টাকায় কিনে নিই। পরে বিভিন্ন জায়গায় যোগাযোগ করে গাজীপুরের ইঞ্জিনিয়ার পিন্টু নামের এক ব্যবসায়ীর কাছে ১ হাজার ৭০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছি।

গোয়ালন্দ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ বলেন, এ মৌসুমে এখন পদ্মা নদীতে প্রায়ই বড় ধরনের মাছ পাওয়া যাবে। তবে এত বড় মাছ এখন খুব একটা দেখা যায় না।