শনিবার | ১৯ জুন ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • ইসলামোফোবিয়া বন্ধের পরিকল্পনা প্রণয়নের দাবি
  • গ্রীষ্মের শুরুতে কানাডার অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যাশা
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১২০০ ছাড়াল

: ৫ জুলাই ২০২০ | দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক বাংলাদেশ অফিস |

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক দম্পতি, তাঁদের দুই সন্তান, আরও দুজন চিকিৎসকসহ ৮২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আজ রোববার ও গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তাঁদের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন সিভিল সার্জন কার্যালয়ে এসে পৌঁছায়। এ নিয়ে জেলায় করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৬০। জেলায় নতুন করে দুজন করোনায় মারা গেছেন।

নতুন সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে গতকাল জেলায় ৫৮ জনের নমুনার ফল পজিটিভ আসে। তাঁদের মধ্যে জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল আমিন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। তাঁরা গত ৩০ জুন করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন।

জেলায় কোভিড-১৯ রোগীদের প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, জুন মাসের ৩০ দিনে সংক্রমিত হয়েছেন ৮৩৭ জন। প্রতিদিন ২৭ জনের বেশি সংক্রমিত হয়েছেন। অর্থাৎ মোট সংক্রমণের ৬৬ দশমিক ৪২ শতাংশই হয়েছে গত জুন মাসে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন ১০ এপ্রিল। ওই সময় থেকে ৩১ মে পর্যন্ত কোভিডে সংক্রমিত হন ১৩১ জন। আর ১ জুন থেকে আজ ৫ জুলাই রাত সোয়া আটটা পর্যন্ত জেলায় সংক্রমিত হন ১ হাজার ১২৯ জন। অর্থাৎ জেলায় সংক্রমিত ব্যক্তির মধ্যে মোট ৮৯ দশমিক ৬০ শতাংশই শনাক্ত হয়েছেন মাত্র শেষ ৩৫ দিনে (১ জুন-৫ জুলাই)।

 

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ঢাকার সরকারি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টারের পিসিআর ল্যাব থেকে ৩৮৬টি নমুনার ফল আসে। যার মধ্যে ৫৮ জনের কোভিডের সংক্রমণ পাওয়া যায়। আর জেলার বেসরকারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব থেকে ৪৬টি নমুনার ফলের মধ্যে ২৪ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। জেলায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় চিকিৎসক দম্পতি, তাঁদের দুই সন্তান, আরও দুজন চিকিৎসকসহ ২৬ জন, নবীনগরে ২৪ জন, কসবায় ১১ জন, আশুগঞ্জে ৬ জন, আখাউড়ায় ৬ জন, সরাইলে ২ জন ও বিজয়নগরে ৭ জন রয়েছেন।

জেলায় আজ নতুন করে সুস্থ হওয়া ১৮ জনসহ এ পর্যন্ত সুস্থ ঘোষিত হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন মোট ২৭০ জন। আজ সদর ও নবীনগরে করোনায় আক্রান্ত দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এই দুজনসহ জেলায় এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২২ জন। তাঁদের মধ্যে ১৮ জনই জুন মাসে মারা গেছেন।

করোনা রোগীদের তথ্য ঘেঁটে জানা গেছে, ১০ থেকে ১২ জুন তিন দিনে ১০১ জন সংক্রমিত হয়েছেন। আর ১৮ জুন রাতে আসা ৪৭৮টি নমুনার ফলের মধ্যে সর্বোচ্চ ১০৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। ২২ থেকে ২৪ জুন সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫১ ঘণ্টায় ১১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। ২৬ থেকে ২৮ জুন জেলায় ২১৪ জনের, ৩০ জুন মঙ্গলবার ৮১ জনের ও চলতি জুলাই মাসের আজ (১-৫ জুলাই) পর্যন্ত ২৯২ জন সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন। জেলায় ১০ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা ছিল ১৩১। এরপর জুন মাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৮৩৭ জন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে ৮২ জন করোনায় শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল আমিনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 


[email protected] Weekly Bengali Times

-->