এবার ছেলেধরা গুজবের শিকার হল ‘প্রেমিক যুগল’

২৬ জুলাই ২০১৯


এবার ছেলেধরা গুজবের শিকার হল ‘প্রেমিক যুগল’

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে এবার ছেলেধরা সন্দেহে প্রেমিক যুগলসহ ৩ জনকে আটক করেছে স্থানীয় জনতা। এ সময় ঘটনাস্থলে উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।  বৃহস্পতিবার দুপুরে কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা চা বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানান কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুর রহমান।

আরিফুর রহমান বলেন, সিলেট ওসমানি নগর উপজেলার একটি ছেলে ও কমলগঞ্জ কামোদপুর ইউনিয়নের একটি মেয়ে সিএনজি অটোযোগে পাত্রখোলা চা বাগানে বেড়াতে যায়। তাদের চলাফেরায় স্থানীয়দের মধ্যে সন্দেহ দেখা দিলে কয়েকজন তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এগিয়ে যায়। 

তিনি আরও বলেন, এসময় তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে একজন ছেলেধরা বলে চিৎকার দেয়। যা শুনে শতাধিক শ্রমিক জড়ো হয়ে ওই প্রেমিক যুগলকে আটক করে। এ সময় তাদেরকে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে রক্ষা করতে গিয়ে গুরুত্বর আহত হয়েছেন মন্তাজ মিয়া নামে এক পল্লী চিকিৎসক। তাকে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে হয়েছে। 

পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে তিনজনকে উদ্বার করে থানায় নিয়ে আসে এবং প্রেমিক যুগলকে তাদের অভিবাবকের হাতে তুলে দেয়। (নাম প্রকাশ না করার শর্তে) প্রেমিক ছেলেটির (২২) বাড়ি সিলেট ওসমানিনগর উপজেলার সারইদা গ্রামে। প্রেমিকা ১০ শ্রেণির ছাত্রীর (১৭) বাড়ি কমলগঞ্জ উপজেলার কামোদপুর গ্রামে। ওসি জানান, যারা ছেলে ধরা বলে তাদের আক্রমণ করতে চেয়েছিলো তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এ সময় তিনি আরও জানান, 'ছেলা ধরা শুধুই গুজব' নিয়ে গত দুই দিনে ১৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সমাবেশ করেছেন কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসন। যারা এ কর্মকাণ্ড করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সেখানে প্রত্যেককে অবহিত করা হয়েছে।