১৪ হাজার বিদেশী কলকাতায় নেমে কোথায় গেলেন?

২১ মার্চ ২০২০


১৪ হাজার বিদেশী কলকাতায় নেমে কোথায় গেলেন?

পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় শনিবার পর্যন্ত দুই জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। আক্রান্ত দুই জন সম্প্রতি যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেছেন। এ নিয়ে পুরো কলকাতায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় নবান্ন থেকে বলা হচ্ছে, শুধু বিদেশ ঘুরে আসা কলকাতাবাসী নয় চিন্তা বাড়াচ্ছেন গত দুই সপ্তাহে কলকাতায় আসা ১৪ হাজার বিদেশি নাগরিক। তাদের মধ্যে সবাই করোনায় আক্রান্ত দেশ থেকে এসেছিলেন। কলকাতায় নামার পর থেকেই তাদের খুঁজে পাচ্ছে না রাজ্য প্রশাসন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা’র। 

সরকারি তথ্য মতে, শুক্রবার পর্যন্ত রাজ্যে ১৯ হাজার ৫০০ মানুষ বাড়িতে স্বেচ্ছাবন্দি বা কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। তাদের অধিকাংশই বিদেশফেরত। কিন্তু ১ মার্চ থেকে ১৭ মার্চের মধ্যে যেসব বিদেশি কলকাতায় এসেছেন, তারা কোথায় আছেন, তার যথাযথ তথ্য রাজ্য সরকারের কাছে নেই।

রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই তথ্য রাখার দায়িত্ব কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিদেশি নিবন্ধীকরণ বিভাগের। তারাই মূলত শহরে আসা বিদেশিদের খোঁজখবর রাখে। যদিও বিদেশি নিবন্ধীকরণ বিভাগের কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, কোনও বিদেশির ভিসা ফর্মে শহরে থাকার যে ঠিকানা থাকে তা সঙ্গে বিস্তারিত তালিকা সরকারকে দেওয়া হয়েছে। বিদেশিরা কলকাতায় এসে কোথায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন তা দেখতে হলে পুলিশকেই মাঠে নামতে হবে। 

কোভিড-১৯ ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পরে কলকাতায় আসা বিদেশিদের প্রতি নির্দিষ্ট নির্দেশিকা জারি করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। তাতে জানানো হয়, যে-সব দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছে সেসব দেশের নাগরিকেরা এই সময়ে শহরে এলে বাধ্যতামূলক ভাবে ১৪ দিন স্বেচ্ছাবন্দি বা কোয়ারেন্টিইনে থাকতে হবে। অন্য দেশের নাগরিকদেরও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। করোনার উপসর্গ দেখা দিলে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। 

রাজ্য সরকারের হিসাব অনুযায়ী, ১ থেকে ১৭ মার্চের মধ্যে ১৪,০৭৫ জন বিদেশি নাগরিক কলকাতায় নেমেছেন। অনেকে ফিরে গেছেন নিজ দেশে। আবার অনেকে কলকাতায় বা অন্য শহরে থেকে গেছেন। তবে বিদেশীদের মধ্যে ইরানের কোন নাগরিক নেই। বাংলাদেশের নাগরিক রয়েছেন ৮২৫৯ জন। এ সংখ্যাটাই সব থেকে বেশি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা থেকে কয়েক শত নাগরিক কলকাতায় নেমেছেন।