যে কারণে বদলে গেল পরীমনির ওয়েব সিরিজের নির্মাতা

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০


যে কারণে বদলে গেল পরীমনির ওয়েব সিরিজের নির্মাতা

নাটক, টেলিছবি, ছবি নির্মাণের পর ওয়েব সিরিজ নিয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। গত বছর মার্চ মাসে অভিনেত্রী পরীমনি নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ঊনপঞ্চাশ বাতাস ছবির পোস্টার এবং সিরিজটির গল্প শুনে বেশ ভরসা পেয়েছিলেন নির্মাতার সঙ্গে কাজ করার। বিশাল সেট নিয়ে শুটিং শুরু হয়ে বিভিন্ন কারণে গত সাত মাস শুটিং বন্ধ থাকে। নতুন নির্মাতা নিয়ে গত জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে আবার পাফ ড্যাডি ওয়েভ সিরিজের শুটিং শুরু হয়। বদলে যায় নির্মাতা। কেন নির্মাতা, চিত্রনাট্যকার, শিল্পনির্দেশক মাসুদ হাসান উজ্জ্বলকে ছাড়া শুটিং হয়েছে, সেটাই জানার চেষ্টা করেছি।

পাফ ড্যাডির শুরু
২০১৯ সালের ২৩ মে বিশাল সেট নিয়ে ছোট পর্দার গুণী নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল শুরু করেছিলেন ওয়েব সিরিজ
পাফ ড্যাডির শুটিং। সে সময় টানা শুটিং করে ৯০ ভাগ কাজ শেষ করেন নির্মাতা। মোট ১০ পর্বের মধ্যে সিরিজটির ৯ পর্ব সম্পাদনা করে জমা দিয়েছিলেন নির্মাতা। সে সময় নির্মাতা ভিন্নধর্মী এই সিরিজটি প্রসঙ্গে বলেছিলেন, এই প্রথম সুররিয়ালিস্টিক ধারা থেকে বের হয়ে থ্রিলার গল্প নিয়ে কাজ করছি। দর্শক ধরে রাখতে ওয়েব সিরিজটিতে রহস্য এবং গতি উভয়েরই সমান্তরালভাবে এগোবে।

নির্মাতা বদল
পরিচালকের মতে, প্রায় ৯০ ভাগ কাজ শেষ হওয়ার পর দীর্ঘদিন শিডিউল জটিলতায় কাজটি বন্ধ ছিল। অনেকবার শুটিং শুরুর কথা থাকলেও শিডিউল বারবার পরিবর্তন হয়। অবশেষে চলতি বছর ২৩ জানুয়ারি থেকে শুটিং শুরু হলে হঠাৎ বদলে যায় নির্মাতা। মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের পরিবর্তে
প্যাফ ড্যাডির সিরিজের সঙ্গে যুক্ত হন আরেক নির্মাতা শহিদ উন নবী। এই নির্মাতা সম্প্রতি পাফ ড্যাডির শুটিং শেষ করেন।

পাফ ড্যাডির শুটিংয়ে পরীমনি ও সজল। ছবি: ফেসবুককেন এই বদল
কেন বদলে গেল নির্মাতা
এ বিষয়ে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বঙ্গ বিডির কনটেন্ট প্রধান ভাস্কর আবেদীন জানান, আগের নির্মাতা পরীমনিকে নিয়ে কাজ করতে অস্বীকার করেছিলেন। শুটিং করার একটা পর্যায়ে নির্মাতা পরীমনিকে নিয়ে কাজ করতে চাননি। তিনি পরীমনির বেশির ভাগ কাজ বাদ রেখেছিলেন। পরে পরীমনিকে বাদ দিয়ে আগের নির্মাতা (মাসুদ হাসান উজ্জ্বল) অন্য কাউকে নিয়ে পুনরায় শুটিং করতে চেয়েছিলেন। এ ছাড়া ভাস্কর আবেদীন আরও বলেন, আগের নির্মাতা আমাদের যে ৬০৬৫ ভাগ কাজ জমা দিয়েছিলেন, সেটা আমাদের ও ক্লাইন্টদের কাছে উৎকৃষ্ট মানের মনে হয়নি। যে কারণে তাঁকে সিরিজ থেকে বাদ দিতে হয়েছে।

নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ভাষ্য
সিরিজটির প্রায় পুরো কাজই শেষ করেছিলেন নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। ১০ পর্বের মধ্যে ৯ পর্ব সম্পাদনা করে জমা দিয়েছিলেন এই নির্মাতা। তবে কিছু প্যাচ ওয়র্কের কাজ বাদ ছিল বললেন নির্মাতা। তিনি বলেন,
প্যাচ ওয়র্কের জন্য অল্প কিছুদিনের শিডিউল বাদ ছিল। শিডিউল এবং শিল্পী ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব ছিল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ওপর। কিন্তু তারা মাসের পর মাস শিডিউল নিতে দেরি করছিল। একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আমি তাদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ছিলাম। একটি কাজ নিয়ে মাসের পর মাস আমি বসে থাকতে পারি না। পরে আমি সিরিজটি থেকে সরে আসি।

পাফ ড্যাডির শুটিংয়ে পরীমনি ও সজল। ছবি: ফেসবুকপ্রযোজক বনাম পরিচালক
প্রযোজকের প্রথম অভিযোগ, পরীমনিকে বাদ দিয়ে পুনরায় শুটিং করতে চেয়েছিলেন নির্মাতা। এ প্রসঙ্গে নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল বলেন,
না, এ রকম আমি কিছু বলিনি। আমি তাদের বলেছি শিল্পীদের শিডিউল ম্যানেজ করা না গেলে বিকল্প শিল্পী নিয়ে ভাবতে। কারণ, একটা কাজ নিয়ে তো আমি অনন্তকাল বসে থাকতে পারি না। আমি দীর্ঘ প্রায় ২০ বছর মিডিয়ায় কাজ করি। কেউ বলতে পারবে না কোনো প্রজেক্ট আমি ছেড়ে এসেছি। এ ছাড়া প্রযোজক নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের নির্মিত পর্বগুলোর মান নিয়ে প্রশ্ন তুললে নির্মাতা বলেন, আমার কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন করাটা ধৃষ্টতার পর্যায়ে পড়ে। আমার সম্পূর্ণ ক্যারিয়ারে কেউ কোনো দিন আমার কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন করেননি। আমি স্পর্ধা শব্দটি ব্যবহার করলেও ভুল হবে না। আমার কাজের মান নিয়ে কথা বলার স্পর্ধাই কেউ পায়নি। তারা যে কোয়ালিটি নিয়ে কথা বলছে, সেটা আমারই তৈরি করে দেওয়া। একটি কাজ থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর প্রতিহিংসায় নায়িকাকে বাদ দিতে বলেছি, কাজের মান ভালো নাএগুলো বলা কোনো সততার মধ্যে পড়ে না। নায়িকাকে বাদ দেওয়ার বিষয়ে কথা বলাটাই স্পর্শকাতর বিষয়। মিডিয়ায় আমার কাজের রেকর্ড এবং এখন যে কাজ করছে, তার কাজের রেকর্ড দেখলেই কার কাজের মান কেমন পরিষ্কার হবে।

নতুন সিরিজের মান নিয়ে নির্মাতার প্রশ্ন
প্রত্যেক নির্মাতার কাজের একটা আদর্শ মান থাকে। সেখানে একই আদর্শমানের নির্মাতা হলে মেনে নেওয়া যায়। কিন্তু এমন একজন নির্মাতাকে তারা
পাফ ড্যাডি সিরিজের জন্য বেছে নিয়েছে, তাকে আমি চিনিও না। এখন আমার নেওয়া শর্টের সঙ্গে আরেকজন নির্মাতার নাম যাচ্ছে, এগুলো নৈতিকভাবে ঠিক নয়। তা ছাড়া প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আমার সঙ্গে প্রথমেই চুক্তি করেছে সেখানে নির্মাতা হিসেবে আমার নাম যাবে।

পাফ ড্যাডি আসছে এ মাসের শেষে
প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে জানানো হয়েছে, এ মাসের শেষের দিকে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে সিরিজটি। সিরিজে নাম ভূমিকায় আছেন আজাদ আবুল কালাম। বিভিন্ন চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন, পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, সালাউদ্দিন লাভলু, আবদুর নূর সজল, বিজরি বরকত উল্লাহ, মৌটুসি বিশ্বাস প্রমুখ। সিরিজটি ১০ পর্বের জায়গায় ৭ পর্ব করা হবে।