অপ্রতিরোধ্য সানিয়া এবার সেমিফাইনালে

১৬ জানুয়ারী ২০২০


অপ্রতিরোধ্য সানিয়া এবার সেমিফাইনালে

দীর্ঘদিন পর কোর্টে ফেরা সানিয়া মির্জা হোবার্ট ইন্টারন্যাশনালে ভালই দক্ষতা দেখাচ্ছেন। সানিয়া-নাদিয়া কিচেনক জুটি দুরন্ত খেলে চলে গেলেন সেমিফাইনালে। এই জয় দেখে অনেকেই মনে করছেন, ২০ জানুয়ারিতে শুরু অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে নিজেকে ভালোভাবেই প্রস্তুত করছেন সানিয়া।  ইউক্রেনের নাদিয়া কিচেনকের সঙ্গে জুটি গড়ে এগিয়ে চলছেন সানিয়া মির্জা। আজ বৃহস্পতিবার টুর্নামেন্টটির কোয়ার্টার ফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যানিয়া কিং ও ক্রিস্টিনা ম্যাকহ্যাল জুটিকে ৬-২, ৪-৬, ১০-৪ গেমে হারান এই জুটি।

লড়াই তীব্র হলেও প্রথম সেটে ৩-০ লিডে এগিয়ে যান তাঁরা। সহজেই পকেটে পোরেন সেই সেট। তবে দ্বিতীয় সেটে ঘুরে দাঁড়ায় মার্কিন জুটি। স্কোর ৪-৪ হয়ে যায়। তবে ১ ঘণ্টা ২৪ মিনিটের লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসেন সানিয়ারাই। সেমিফাইনালে তারা মুখোমুখি হবে স্লোভেনিয়ান জুটি তামারা জিদানসেক-ম্যারিয়ে বুজকোভার সঙ্গে।

ভারতীয় টেনিস সেনসেশন সানিয়া সর্বশেষ খেলেছিলেন ২০১৭ সালের অক্টোবরে চায়না ওপেনে। এরপর চোট ও মাতৃত্বের কারণে দুই বছরের বেশি সময় পর এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে খেলায় ফিরেছেন সানিয়া। পাকিস্তানী ক্রিকেটার শোয়েব মালিক-সানিয়া দম্পত্তির একমাত্র পুত্রসন্তান ইজহান।

গত মঙ্গলবার সানিয়া ও তাঁর ইউক্রেনের পার্টনার প্রথম রাউন্ডে নেমেছিলেন ওকসানা কালাশানিকভা ও মিয়ু কাটোর বিপক্ষে। সেই ম্যাচের সানিয়ারা জিতেন ২-৬, ৭-৬ (৩), ১০-৩ সেটে। ম্যাচ চলে ১ ঘণ্টা ৪১ মিনিট।

ওই জয়ের পর সানিয়া টুইটারে বলেছিলেন, ‘আজকের দিনটা আমার কাছে স্পেশ্যাল হয়ে থাকবে। আড়াই বছর পরে খেলতে নামার সময় বাবা-মা এবং ছোট্ট ছেলে আমাকে সাপোর্ট করতে হাজির এখানে। সবচেয়ে বড় কথা, আমরা প্রথম রাউন্ড জিতেছি আমার পার্টনারের সঙ্গে। আমাকে যারা ভালাবাসার বার্তা দিয়েছেন তাঁদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। আসল কথা হল নিজের উপর বিশ্বাস রাখা। আমার ছোট্ট ছেলেকে বলছি, নিজের উপর বিশ্বাস থাকলে যেখানে পৌঁছতে চাও, পৌঁছতে পারবে। আমরা কিন্তু আজ জিততে পেরেছি।’