মঙ্গলবার | ৯ মার্চ ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • এবার কানাডায় অনুমোদন পেল জনসনের টিকা
  • ৮ মার্চ টরন্টোর ওপর থেকে জনস্বাস্থ-সংক্রান্ত কিছু বিধিনিষেধ প্রত্যাহার হতে পারে

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা করেছে আওয়ামী যুবলীগ স্পেন শাখা। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) দেশটির রাজধানী মাদ্রিদের মেহমান খানা রেস্টুরেন্টে এ আলোচনাসভায় স্পেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনসহ একাধিক অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে যোগ দেন।

আশপাশের কয়েকটি রাজ্য থেকেও বেশ কয়েকজন নেতা আলোচনায় অংশ নেন। স্পেন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মো. ইফতেখার আলমের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্পেন আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি মো. জাকির হোসেন। যুবলীগ নেতা ওলিউর রহমানের প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন,বাংলাদেশ বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সভাপতি প্রবীণ কমিউনিটি নেতা মো. আব্দুল মালেক, স্পেন আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের ঢালী, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মোহাম্মদ ইসলাম,বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন স্পেনের সভাপতি সাংবাদিক এ কে এম জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আহমদ আসাদুর রহমান সাদ, স্পেন আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি মো. বোরহান উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আফসার হোসেন নীলু, স্পেন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিন, স্পেন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রফিক খান, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মো. জসিম উদ্দিন মাস্টার, আওয়ামী লীগ নেতা মো. রুহুল আমীন রুবেল,বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন স্পেনের প্রচার সম্পাদক মো. আবুল কালাম, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী তোয়াবুর রহমান, আনোয়ারুল কবির পরান, এম আই আমীন, মো. সাইফুর রহমান আমীন, যুবলীগ নেতা শিপন আহমদ রাহি, ছাত্রলীগ নেতা আব্দুন নূর নীরব,রাজীব আহমদ, শফিকুন নূর, সুব্রত রয় শুভ, শাহিন মিয়া, সাদেক আহমদ, শাওন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, দীর্ঘ নয় মাস কারাবরণ করে বঙ্গবন্ধু এই দিনে স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে ১০ জানুয়ারি পা রাখেন। ঐদিন বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আজ আমার জন্ম স্বার্থক হয়েছে কারণ আমার সারা জীবনের স্বপ্ন স্বাধীন বাংলা বাস্তবায়ন করতে পেরেছি।

তিনি যদি সেদিন ফিরে না আসতেন তাহলে বাংলার মানুষের কাছে স্বাধীনতা শব্দটির অর্থ ম্লান হয়ে যেত। আমরা আজ তাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করছি। বক্তারা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী পালনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। আলোচনাসভা শেষে বিশেষ দোয়া ও নৈশভোজের মাধ্যমে সভা ও দোয়া মাহফিলের সমাপ্তি হয়।