পুলিশের গুলির সামনে বুক পেতে দেব: ইশরাক

৯ জানুয়ারী ২০২০


পুলিশের গুলির সামনে বুক পেতে দেব: ইশরাক

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণার মাঠে নামের আগে সবশেষ সাংগঠনিক প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছেন প্রার্থীরা। আগামীকাল প্রতীক বরাদ্দের পরপরই ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যেতে শুরু করবেন তারা। ইভিএম ও আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ নিয়ে বিএনপির আপত্তির মুখে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বলছেন, নিয়ম মেনেই ভোট চাইবেন তারা। মনোনায়ন পত্র যাচাই-বাছাই, প্রত্যাহার। তফসিলের প্রথমভাগের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে প্রার্থীদের এবার ভোটারদের মন জয়ের পালা। শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দ তার পরেই পুরোদমে শুরু হবে প্রচার প্রচারণা।

তার আগে সাংগঠনিকভাবে নিজেদের গুছিয়ে নিতে তৎপর দুই সিটির প্রার্থীরা। শুরু থেকেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ বিএনপির। আছে ইভিএম নিয়ে প্রবল আপত্তি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন, বিজয় আমাদের হয়ে গেছে। তারা ভয়ে বিভিন্ন কূটকৌশল প্রয়োগ করছে। আমরা তাদের বলতে চাই, পুলিশের গুলির সামনে আমি বুকে পেতে দেব। কোনোভাবে আমরা মাঠ ছাড়বো না।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেন, ৩০ ডিসেম্বর তারা ফলাফল চিনিয়ে নিয়ে গেছে। জনগণ কিন্তু ধানের শীষকে সমর্থন দিয়েছেন। সিটি নির্বাচনে জনগণ বিএনপির পক্ষেই থাকবে।

রিটার্নিং অফিসারের পক্ষ থেকে এক দফা কারণ দর্শানোর নোটিশ হজম করে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বলছেন, নিয়ম মেনেই নির্বাচনের মাঠে আছেন তারা। প্রচারণা শুরু হলে নৌকার পক্ষে ঢল নামবে বলেও দাবি তাদের। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, প্রচারণা শুরু হলে আমরা মাঠে নামবো। আর নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে। আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর পদে।