২০১৯ সালের বাংলাদেশে আতঙ্ক, কাণ্ড

৩০ ডিসেম্বর ২০১৯


২০১৯ সালের বাংলাদেশে আতঙ্ক, কাণ্ড

ক্যালেন্ডারের পাতা আর জীবনের খাতা থেকে হারিয়ে যাচ্ছে আরো একটি বছর৷ একইসঙ্গে অপেক্ষা নতুন বছরে নতুন সূর্যের৷ এ বছর নানা কাণ্ড যেমন মানুষের চোখ কপালে তুলে দিয়েছিল, তৈরি হয়েছিল চরম আতঙ্কের পরিবেশ৷ তেমনি নুসরাত মত তেজী মেয়ে দেখিয়ে গেছে কিভাবে প্রতিবাদ করতে হয়৷

টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ

অভাবনীয় জয় নিয়ে জানুয়ারিতে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয়বারের মত শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করে৷ তবে নতুন মন্ত্রীসভায় ছিল বড় চমক৷ আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ ও মতিয়া চৌধুরীর মত জ্যেষ্ঠ নেতারা মন্ত্রিসভায় ডাক পাননি৷  শরিক দলের নেতাদের জায়গায়ও হয়নি ওই মন্ত্রিসভায়৷ নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে নতুনভাবে যাত্রা শুরু করলেই এক বছরে সরকারের খাতায় তেমন কোনো অর্জন নেই৷

ডেঙ্গু

বাংলাদেশে এ বছর সবচেয়ে বড় আতঙ্কের নাম ছিল ডেঙ্গু৷ বর্ষা মৌসুম শুরু আগেই এপ্রিল-মে মাসের দিকে রাজধানী ঢাকায় ডেঙ্গু রীতিমত মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ে৷ যা এক সময় সারা দেশে ছড়িয়ে যায়৷ ডেঙ্গু প্রতিরোধে ঢাকার দুই মেয়রের নান উদ্যোগও চরম ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়৷ এবছর ডেঙ্গু ‘ব্যতিক্রমী' চেহারা নিয়ে হাজির হয়েছিল৷  অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার প্রচণ্ড জ্বর তেমন একটা দেখা যায়নি৷ বরং জ্বর ভালো হওয়ার পর রোগী সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে থাকতেন৷ এবার ডেঙ্গুতে মস্তিষ্ক, হৃদযন্ত্র, যকৃত ও কিডনিরমত সংবেদনশীল অঙ্গ আক্রান্ত হয়ে মানুষের মৃত্যু বেশি হয়েছে৷ ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়েও রয়েছে দ্বিমত৷ সরকারি হিসাব মতে ডেঙ্গুতে এবছর সারাদেশে ১১২ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ কিন্তু বেসরকারি ও সংবাদমাধ্যমের হিসাব অনুযায়ী এবছর সারাদেশে ডেঙ্গুতে দুই থেকে আড়াইশ মানুষ মারা গেছেন৷

পেঁয়াজ কাণ্ড

এ বছর আরেক আতঙ্কের নাম ছিল পেঁয়াজ৷ নিজেদের বাজার সামলাতে সেপ্টেম্বরে ভারত সরকার হঠাৎ করেই পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দিলে দেশের বাজারে যেন আগুন লেগে যায়৷ রাতারাতি পেঁয়াজের দাম পাঁচ/ছয় গুণ বেড়ে যায়৷ জ্যামিতিক হারে এই দাম বাড়তে বাড়তে কেজি ২৫০ টাকা পর্যন্ত উঠে যায়৷ এই সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী পেঁয়াজ মজুদ করে বাজার আরও বেসামাল করে দেন৷

সরকার নানা দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করে পরিস্থিতি কিছুটা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছে৷ দেশেও পেঁয়াজের মৌসুম শুরু হওয়া দাম কিছুটা কমে এসেছে৷ তবে এখনো দাম স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি বলে মত সাধারণ ভোক্তাদের৷

বালিশকাণ্ড

ছয় হাজার টাকার একটি বালিশ ভবনে ওঠাতে খরচ এক হাজার টাকা- রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মীদের আবাসন প্রকল্পের খরচের এমন হিসাব দেখে অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছিল।

গ্রিনসিটি আবাসন প্রকল্পের ২০ ও ১৬ তলা ভবনের প্রয়োজনীয় মালামাল কেনা ও ভবনে তোলার কাজে অস্বাভাবিক ব্যয় নিয়ে বছরের মাঝামাঝিতে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দুর্নীতির এই চিত্র বেরিয়ে আসে। পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে এমন নয়-ছয়ের গল্প প্রকাশ্যে আসে৷

আবরার হত্যাকাণ্ড

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের মত চরম লজ্জার ঘটনাও এবছর ঘটেছে৷ গত ৬ অক্টোবর শেরেবাংলা হলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কয়কঘণ্টার নির্যাতনে প্রাণ হারায় আবরার৷ এর বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু হলে বুয়েট কর্তৃপক্ষ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ২৬ শিক্ষার্থীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে৷ তাদের বিরদ্ধে এখন হত্যা মামলা চলছে৷

সৌদি আরবে গৃহকর্মী নির্যাতন

গত ২৬ আগস্ট সৌদি আরব থেকে ১১১ নারী গৃহকর্মী দেশে ফিরে আসায় নতুন করে পুরানো সমস্যাটি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়৷  ১৯৯২ সাল থেকে বাংলাদেশি নারীরা সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে যাওয়া শুরু করলেও ২০১৫ সালে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি হয়৷ চুক্তির পর নারী গৃহকর্মী পাঠানোর হার বড়ালেও কিছু দিন যেতে যেতেই নারীরা ফেরত আসতে শুরু করেন৷ ফেরত আসা নারীরা বেতন না দেওয়া ও যৌন নিপীড়নসহ নানা অভিযোগ করতে থাকেন৷ তবে এবছর একসঙ্গে অনেক নারীর ফিরে আসা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কয়েকজন নারীর নির্যাতনের শিকার ও দেশে ফিরিয়ে আনার আকুতির ভিডিও ভাইরাল হলে দেশ জুড়ে সরকারের তীব্র সমালোচনা শুরু হয়৷ সরকার প্রথমে বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও পরে চাপের মুখে সংসদীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে৷ ওই কমিটির প্রতিবেদনে সৌদি আরবে নারী গৃহকর্মীদের নানা নির্যাতনের পাশাপাশি যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়৷ সংকট সমাধানে বাংলাদেশ সরকার বিষয়টি নিয়ে সৌদি সরকারের সঙ্গে আলোচনা করছে৷

ক্যাসিনো কাণ্ড

সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে ঢাকার মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসার বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসে৷ শুরু হয় হইচই,  সামনে চলে আসে যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের নাম।  একে একে বাংলাদেশের ক্রীড়া জগতের নামকরা দুই ক্লাব মোহামেডান স্পোর্টিং ও কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের নামও ক্যাসিনো কাণ্ডে জড়িয়ে যায়৷ দেশের ক্রীড়া অঙ্গনে এত বড় আঘাত আর আসেনি৷ তীব্র ঝাঁকুনিতে থরথর করে কাঁপতে থাকা ক্রীড়া অঙ্গনে ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় হওয়ার অবস্থা হয়৷

ফুলবাগান ক্লাব (মিরপুর), চলন্তিকা ক্লাব (মিরপুর), আরামবাগ ক্রীড়া চক্র, ইয়ং মেনস (ফকিরাপুল),  ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব, আরামবাগ ক্লাব, দিলকুশা ক্লাব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব, বনানী গোল্ডেন ক্লাব, ঢাকা ক্লাব, দিলকুশা স্পোর্টিং ক্লাব, কলাবাগান ক্রীড়া চক্র ও বনানী ক্লাবে অবৈধ জুয়ার আসর বসার খবর প্রকাশ পায়৷

রাজাকারের তালিকায় মুক্তিযোদ্ধা

বছরের শেষদিকে এসে সম্ভবত এ বছরের সবচেয়ে লজ্জাজনক ঘটনা ঘটেছে৷ বিজয় দিবসের উপহার হিসেবে ১৫ ডিসেম্বর সরকার রাজাকারের যে তালিকা প্রকাশ করে তাতে অনেক মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকের নাম চলে আসে৷ যা নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক তাড়াহুড়ায় ভুল হয়েছে স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং বর্তমান তালিকা স্থগিত করে পরে সংশোধিত তালিকা প্রকাশ করার কথা জানান৷

নুসরাত

বাংলাদেশের অগ্নিকন্যা নুসরাত জাহান রাফি৷ নিজের অপমানের প্রতিবাদ জানানোয় ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার এ ছাত্রীকে প্রাণ পর্যন্ত দিতে হয়েছে৷  অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলায় গত ৬ এপ্রিল পরীক্ষার হল থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়৷ মৃত্যুর মুখে দাঁড়িয়েও নিজের অবস্থান থেকে একচুল না সরে অপমানের বিচার চেয়ে গেছে এই কিশোরী৷ ২৪ অক্টোবর নুসরাত হত্যা মামলার ১৬ আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত৷

খেলাধূলা

এ বছর ক্রীড়া অঙ্গনে বিশেষ করে নারীদের হাত ধরে কিছু সাফল্য ধরা দিলেও বড় ধাক্কা হয়ে এসেছে সাকিব আল হাসানের উপর আইসিসির এক বছরের নিষেধাজ্ঞাদেশ৷  ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পর তা গোপন করায় বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিবকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি৷ তবে দোষ স্বীকার করায় এক বছরের শাস্তি স্থগিত রাখা হয়েছে৷ শাস্তি মেনে নিয়ে নিজের কাজের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন সাকিব৷

মৃত্যু

এ বছর কয়েকজন নামীদামী মানুষ ও রাজনীতিককে হারিয়েছে বাংলাদেশ৷ ওই তালিকায় আছেন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সাদেক হোসেন খোকা, মমতাজউদ্দীন আহমদ,  শাহনাজ রহমতুল্লাহ, সুবীর নন্দী আল মাহমুদ, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার, অধ্যাপক অজয় রায় ও ফজলে হাসান আবেদ৷৷