খালেদার জামিন চাইতে আবারো আদালতে যাবেন আইনজীবীরা

২২ ডিসেম্বর ২০১৯


খালেদার জামিন চাইতে আবারো আদালতে যাবেন আইনজীবীরা

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের প্রক্রিয়া নিয়ে নতুন করে ভাবছেন তার আইনজীবীরা। পুনরায় আপিল বিভাগ ও হাইকোর্টে জামিন আবেদন করা হবে বলে জানান, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। তাঁর অসুস্থতার বিষয়টি স্পষ্ট করতে প্রয়োজনে আদালতে হাজির করার কথাও জানিয়েছেন তিনি। এদিকে দুদক আইনজীবী বলছেন, আপিল বিভাগে খারিজের পর নতুন করে জামিন পাওয়া নজিরবিহীন। গত ১২ ডিসেম্বর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বেগম জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ করে দেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত। প্রধান বিচারপতিসহ ৬ বিচারপতিই শুধু অসুস্থতা বিবেচনায় জামিন না দেয়ার পক্ষে রায় দিয়েছেন।

সর্বোচ্চ আদালতে জামিন খারিজের পর বৈঠক করেছেন খালেদা জিয়ার সিনিয়র আইনজীবীরা। রোববার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন জানান, সুপ্রিম কোর্টের অবকাশ-কালীন ছুটি শেষে জানুয়ারিতে আবারো আপিল বিভাগ এবং হাইকোর্টে জামিন চাইবেন তারা।

অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, ছুটির পরে এ বিষয়ে আমরা আবারও আদালতে যাবো। তবে আমরা আদালতে রিভিউ করতেও পারি আবার হাইকোর্ট বিভাগেও যেতে পারি, আমাদের সেই এখতিয়ার আছে। যতো বার ইচ্ছা জামিন আবেদন দাখিল করা যায়। কারণ বেগম খালেদা জিয়া অনেক অসুস্থ, তাই আমরা আদালতে আবেদন করবো যে, আদালত যেনো সশরীরে তাকে হাজির করে দেখেন তার শারীরিক অবস্থা।

দুদকের আইনজীবী বলছেন, আপিল বিভাগে জামিন খারিজের পর পুনরায় আবেদন করার সুযোগ থাকলেও প্রতিকার পাওয়া নজিরবিহীন।

দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান বলেন, এই আবেদনে হাইকোর্টের কতটুকু চাওয়া আছে, সেটা আপিল বিভাগের জাজমেন্ট না দেখলে বুঝা যাবে না। তবে আমরা চেষ্টা করছি পুরোপুরি আপিল বিভাগ তৈরি করে কিভাবে দ্রুত শুনানি তৈরি করা যায়। বেগম জিয়ার আইনজীবীর অভিযোগ, আপিল বিভাগের নির্দেশনার পরও তার উন্নত চিকিৎসা শুরু করেনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল। প্রকাশ হয়নি জামিন খারিজের আপিলের রায়।