আওয়ামী লীগে ছিলাম আছি থাকবো: সোহেল তাজ

২০ ডিসেম্বর ২০১৯


আওয়ামী লীগে ছিলাম আছি থাকবো: সোহেল তাজ

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগের পর দীর্ঘদিন ধরে দলের বাইরে থাকা সোহেল তাজ বলেছেন, আমি আওয়ামী লীগের সঙ্গে ছিলাম, আছি, থাকবো। শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শুরু হওয়া আওয়ামী লীগের ২১তম সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে তিনি এই কথা জানান। এদিন বিকেল তিনটার পর শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। দুপুরে আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফের ছোট বোন কিশোরগঞ্জ-১ আসনের এমপি সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপিকে সঙ্গে নিয়ে সম্মেলনস্থলে আসেন সোহেল তাজ।

তিনি বলেন, আজকের সম্মেলনের সফলতা কামনা করছি। এ সম্মেলনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও ৩০ লাখ শহীদের বিনিময়ে যে জন্য বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে তা বাস্তবায়ন হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনারবাংলা গড়তে সবসময় আমি পাশে থাকব।

২০০৮ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি সোহেল তাজকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর, একই বছরের ৩১ মে হঠাৎ করেই অজানা কারণে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমেদ ও আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কাণ্ডারি সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীনের একমাত্র ছেলে তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর ২০১২ সালের ৭ জুলাই সংসদ সদস্য পদ থেকেও পদত্যাগ করেন। তাকে রাজনীতিতে ফেরাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তৎকালীন দলীয় সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ অনেক চেষ্টা করেছেন। তারপরেও তাকে রাজনীতিতে ফেরানো সম্ভব হয়নি।

এরপর, কেটে গেছে দীর্ঘ সময়। রাজনীতিতে না জড়ানোর কথা বললেও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর-৪ আসনে বোন সিমিন হোসেন রিমির নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ আওয়ামী লীগের ২০তম কাউন্সিলে সোহেল তাজ দলীয় পদ পাচ্ছেন- এমন খবর ছড়িয়ে পড়লেও শেষ পর্যন্ত রাজনীতির মাঠে তাকে আর দেখা যায়নি। তবে দলীয় সূত্র বলছে, এবার দলের ২১তম কাউন্সিলে তিনি গুরুত্বপূর্ণ কোনো পদে ফিরতে পারেন।