প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

১৬ ডিসেম্বর ২০১৯


প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

ফরিদপুরে প্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমাকে (১৪) ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ইয়াসিন মোল্লা (২২) পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। রোববার (১৫ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে শহরের রথখোলা লঞ্চঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বন্দুকযুদ্ধের তিন দিন আগে ওই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

নিহত ইয়াসিন মোল্লা শহরের গোয়ালচামট ওয়্যারলেস পাড়া এলাকার মনি মোল্লার ছেলে। তার বিরুদ্ধে আদালতে তিনটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ফরিদপুর কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বেলাল হোসেন জানান, রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে ছবি সংগ্রহ করে ইয়াসিনকে চিহ্নিত করা হয়। এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে রোববার রাতে আটক করে অভিযানে নামলে তার সহযোগী ও পুলিশের মধ্যে গোলাগুলি হয়। 

এ সময় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়। পরে সেখান থেকে ইয়াসিনকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে প্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমাকে রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠ থেকে তুলে নিয়ে যায় ইয়াসিন নামের ওই যুবক। পরের দিন পাশের টেলিগ্রাম অফিসের পাশ থেকে তার বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।