‘অনুমতি না নিয়ে সমাবেশ করার শক্তি বা সক্ষমতা বিএনপির নেই’

২৫ নভেম্বর ২০১৯


‘অনুমতি না নিয়ে সমাবেশ করার শক্তি বা সক্ষমতা বিএনপির নেই’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন,  অনুমতি না নিয়ে সভা-সমাবেশ করার সাহস বিএনপি’র নেই। অনুমতি না নিয়ে বিএনপির সভা-সমাবেশ করার যে ঘোষণা দিয়েছে তা হাস্যকর।  তিনি বলেন, ‘অনুমতি না নিয়ে সভা-সমাবেশ করার সেই সাহস, শক্তি বা সক্ষমতা বিএনপির নেই। বিএনপি তাদের নেত্রীকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে ৫০০ কর্মী নিয়ে একটি মিছিল-মিটিং করতে পারেনি। তারা কীভাবে অনুমতি না নিয়ে সভা-সমাবেশ করবে। আমরা যখন বিরোধী দলে ছিলাম, তখন আমরাও অনুমতি না নিয়ে সভা-সমাবেশ করতে পারিনি। আমাদের সময় এমনও হয়েছে, আগের দিন রাতে আমরা সভার অনুমতি পেয়েছি।’ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

 সরকার কারও কাছে জিম্মি নয়। নতুন সড়ক পরিবহন আইন পরিবর্তনের প্রস্তাবিত দাবিগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা হবে। তবে এই মুহূর্তে কিছু করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মন্ত্রী বলেন, ‘নিয়মকানুন বিসর্জন দিয়ে কোনো কিছু করা যাবে না। সরকার কারও কাছে জিম্মি নয়। নতুন সড়ক পরিবহন আইন পরিবর্তনের প্রস্তাবিত দাবিগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা হবে।'

নতুন সড়ক পরিবহন আইন টিকিয়ে রাখতে তিনি ‘রয়েসয়ে বাস্তবায়নের’ পক্ষে মত দেন তিনি। পরিবহন আইন নিয়ে মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘটের বিষয়টি তুলে ধরে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনারা পরিস্থিতি দেখেছেন। সংবাদমাধ্যম প্রথমে আমাদের পক্ষেই ছিল। তবে এ পরিস্থিতি চার-পাঁচ দিন থাকলে আর পক্ষে থাকত না।’

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার (২৪ অক্টোবর) বিকেলে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত ঢাকা মহানগর (উত্তর ও দক্ষিণ) বিএনপি সমাবেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আজকের এ সমাবেশের অনুমতি সকাল ১০টায় দেওয়া হয়েছে। এরপর থেকে বিএনপি সমাবেশ করতে আর কোনো অনুমতি নেবে না। এখন থেকে আমাদের যখন প্রয়োজন হবে তখনই আমরা সমাবেশ করব। আমরা রাজপথে নামব, এটা আমাদের অধিকার। আমাদের সাংবিধানিক অধিকার যে, আমি প্রতিবাদ করতে পারব।’